Inqilab Logo

শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৬ বৈশাখ ১৪৩১, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫ হিজরী

ইউক্রেন থেকে রুশ সেনা প্রত্যাহারের আহ্বান জাতিসংঘের

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১০:০৩ এএম

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের এক বছর পূর্তি উপলক্ষে স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ভোটাভুটি হয়েছে জাতিসংঘে। সেখানে রাশিয়াকে অবিলম্বে ও নিঃশর্তভাবে ইউক্রেন থেকে সেনা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে জাতিসংঘ। একই সঙ্গে শান্তি প্রতিষ্ঠারও আহ্বান জানিয়েছে বৈশ্বিক এ সংস্থাটি। বার্তা সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

জাতিসংঘের ভোটাভুটিতে ইউক্রেন জোরালো সমর্থন পেয়েছে। বিনা শর্তে রুশ সেনা প্রত্যাহারের প্রস্তাবে কিয়েভের পক্ষে জাতিসংঘের ১৯৩ সদস্যের মধ্যে ১৪১ সদস্য ভোট দিয়েছে। সাতটি ভোট বিপক্ষে পড়েছে। এ ছাড়া চীন ও ভারতসহ ৩২টি দেশ ভোটদানে বিরত ছিল।
এর আগে গত বছরের অক্টোবরে ইউক্রেনের চারটি অঞ্চলকে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করায় জাতিসংঘে নিন্দা প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়েছিল। সেই নিন্দা প্রস্তাবের পক্ষে ১৪৩টি দেশ ভোট দিয়েছিল।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতির প্রধান জোসেপ বোরেল বলেছেন, ‘আজ জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ খুব স্পষ্ট কথা বলেছে। এই ভোট প্রমাণ করেছে যে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ইউক্রেনের পাশে আছে।’

দুই দিন আগে ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্র কুলেবা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ‘ভালো ও মন্দের’ মধ্যে যে কোনো একটিকে বেছে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন। তারপর এই ভোটাভুটি অনুষ্ঠিত হলো।

এ ছাড়া ইউক্রেন শুধু ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা মিত্রদের সহায়তা উপভোগ করছে বলে যে ধারণা রয়েছে সেটি সঠিক নয় বলেও মন্তব্য করেছেন দিমিত্র কুলেবা। তিনি বলেন, ‘বিশ্বের দক্ষিণের দেশগুলো ইউক্রেনের পাশে দাঁড়ায় না বলে যে ধারণা রয়েছে সেটিকেও ভুল প্রমাণ করেছে এই ভোটাভুটি। কারণ লাতিন আমেরিকা, আফ্রিকা ও এশিয়ার অনেক দেশ আজ ইউক্রেনের পক্ষে ভোট দিয়েছে।’

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির চিফ অফ স্টাফ অ্যান্ড্রি ইয়ারমাক ‘যারা রুশ আগ্রাসনের বার্ষিকীতে ইউক্রেনের পক্ষে দাঁড়িয়েছেন’ তাদের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘বিশ্ব বোঝে, সত্য কার পক্ষে।’

এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জাতিসংঘের এ ভোটাভুটি ইউক্রেনের ‘সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখণ্ডতার’ প্রতি সমর্থন পুনর্নিশ্চিত করেছে। এ ছাড়া রাশিয়ার দখল করা ইউক্রেনের অংশগুলোতেও রুশদের যেকোনো দাবি প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে প্রস্তাবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাতিসংঘ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ