Inqilab Logo

শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৩ শাবান সানি ১৪৪৫ হিজরী

ইউক্রেনের শহরগুলিতে ফের রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র বর্ষণ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ ডিসেম্বর, ২০২২, ১২:১৩ পিএম

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন আলোচনার জন্য উন্মুক্ত বললেও সারা দেয়নি ইউক্রেন। এর পরে ক্রিসমাসের দিনেও রাশিয়ান বাহিনী ইউক্রেনের বেশ কয়েকটি শহরে বোমাবর্ষণ করেছে। কিয়েভ সরকারকে কোনঠাসা করতে এটি রাশিয়ার একটি কৌশল বলে মনে করা হচ্ছে।

রাশিয়া রোববার খারকিভ অঞ্চলের কুপিয়ানস্ক জেলায় ১০টিরও বেশি রকেট হামলা চালিয়েছে। তারা কুপিয়ানস্ক-লাইমান ফ্রন্টলাইন বরাবর ২৫টিরও বেশি শহরে গোলা বর্ষণ করেছে এবং জাপোরিজিয়াতে প্রায় ২০টি শহরে আঘাত করেছে, ইউক্রেনের শীর্ষ সামরিক কমান্ড জানিয়েছে। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় রোববার বলেছে যে, তারা কুপিয়ানস্ক-লাইমান যোগাযোগের লাইন বরাবর প্রায় ৬০ইউক্রেনীয় সেনাকে হত্যা করেছে এবং ইউক্রেনের অসংখ্য সামরিক সরঞ্জাম ধ্বংস করেছে।

বিদ্যুৎ কেন্দ্রে রাশিয়ান আক্রমণের ফলে লাখ লাখ মানুষ বিদ্যুৎবিহীন হয়ে পড়েছে। প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি বলেছেন, মস্কো ২০২২ এর শেষ কয়েক দিন অন্ধকার এবং জীবনকে কঠিন করে তুলছে। ‘রাশিয়া এ বছর যা যা করতে পারে তার সবকিছু করেছে। আমি জানি অন্ধকার আমাদের দখলদারদের নতুন পরাজয়ের দিকে নিয়ে যাওয়া থেকে বাধা দেবে না। কিন্তু আমাদের যেকোন পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে,’ বড়দিনের একটি সন্ধ্যায় ভিডিও ভাষণে তিনি বলেছিলেন।

ক্রেমলিন বলেছে যে, তারা তার সমস্ত আঞ্চলিক লক্ষ্য অর্জন না হওয়া পর্যন্ত লড়াই করবে, অন্যদিকে কিয়েভ বলেছে যে, প্রতিটি রাশিয়ান সৈন্যকে দেশ থেকে বহিষ্কার না করা পর্যন্ত তারা বিশ্রাম নেবে না। পশ্চিমের সাথে ভূ-রাজনৈতিক সংঘাত বিপজ্জনক পর্যায়ে পৌঁছেছে কিনা জানতে চাইলে পুতিন রোববার বলেছিলেন, ‘আমি মনে করি না এটি এত বিপজ্জনক।’ সূত্র: রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউক্রেন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ