Inqilab Logo

শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৬ বৈশাখ ১৪৩১, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫ হিজরী

এক মাসের সন্তান রেখে গৃহবধূর আত্মহত্যা

মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১১:১৩ পিএম | আপডেট : ১১:৪৩ পিএম, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে এক মাস বয়সের শিশু সন্তান রেখে মোসাঃ সোনিয়া (২০) নামের এক নারী আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

বুধবার(২২ ফেব্রুয়ারি)সন্ধ্যা ৬ টার দিকে উপজেলার কাকড়াবুনিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ কলাগাছিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মৃত নারী একই গ্রামের বাহাদুর মুন্সির স্ত্রী এবং ইয়াসিন নামের এক মাস বয়সী ছেলে সন্তানের জননী ছিলেন।

নিহতের স্বজন ও স্থানীয়দের কথা বলে জানা গেছে, মৃত্যু সোনিয়ার স্বামী ঢাকায় কাজ করে। স্বামীর বড় ভাই(বাসুর) বিদেশ যাওয়ার জন্য বাহাদুরের কাছে টাকা ধার চেয়েছিল। সোনিয়া টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে, ঘটনার দিন বিকেলে এ নিয়ে স্বামীর সাথে মুঠোফোনে কথার কাটাকাটি হয় তার। ঘটনার সময় বাড়ির চাচি শাশুড়ি তাকে পড়নের ওড়না দিয়ে নিজ ঘরের সামনের বারান্দায় ঝুলতে দেখে চিৎকার দেয়। পরে স্থানীয়রা এসে ওড়না কেটে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃত্যু হয় তার।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবদুল জলিল মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
মির্জাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, পারিবারিক কলহের কারণে আত্মহত্যা করতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আগামীকাল ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হবে।
এক মাসের সন্তান রেখে গৃহবধূর আত্মহত্যা

মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) উপজেলা সংবাদদাতাঃ পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে এক মাস বয়সের শিশু সন্তান রেখে মোসাঃ সোনিয়া (২০) নামের এক নারী আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

বুধবার(২২ ফেব্রুয়ারি)সন্ধ্যা ৬ টার দিকে উপজেলার কাকড়াবুনিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ কলাগাছিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মৃত নারী একই গ্রামের বাহাদুর মুন্সির স্ত্রী এবং ইয়াসিন নামের এক মাস বয়সী ছেলে সন্তানের জননী ছিলেন।

নিহতের স্বজন ও স্থানীয়দের কথা বলে জানা গেছে, মৃত্যু সোনিয়ার স্বামী ঢাকায় কাজ করে। স্বামীর বড় ভাই(বাসুর) বিদেশ যাওয়ার জন্য বাহাদুরের কাছে টাকা ধার চেয়েছিল। সোনিয়া টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে, ঘটনার দিন বিকেলে এ নিয়ে স্বামীর সাথে মুঠোফোনে কথার কাটাকাটি হয় তার। ঘটনার সময় বাড়ির চাচি শাশুড়ি তাকে পড়নের ওড়না দিয়ে নিজ ঘরের সামনের বারান্দায় ঝুলতে দেখে চিৎকার দেয়। পরে স্থানীয়রা এসে ওড়না কেটে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃত্যু হয় তার।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবদুল জলিল মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
মির্জাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, পারিবারিক কলহের কারণে আত্মহত্যা করতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আগামীকাল ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যা

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ