Inqilab Logo

বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ জিলক্বদ ১৪৪৫ হিজরী

ইসলামী দলগুলোর মজবুত প্ল্যাটফর্ম গড়তে হবে

জাতীয় ওলামা সম্মেলনে পীর সাহেব চরমোনাই

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১২:১২ এএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম, পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে অস্থিরতা চলছে। এদেশের শিক্ষা-সংস্কৃতি ও জাতিসত্তা নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে। নীতি ও আদর্শের ক্ষেত্রে অটল থেকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ বিগত ৩৫ বছর ধরে রাজনীতিতে পরিবর্তনের সম্ভাবনা তৈরি করেছে।

স্বাধীনতার ৫২ বছরে যারা রাজনীতি করেছে তারা মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় ও ঐক্য-সংহতি প্রতিষ্ঠার রাজনীতি করেনি। এ কারণে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তনের জন্য কাজ করছে। দেশের চলমান অস্থিরতা নিরসনের একমাত্র পথ হলো ইসলামকে বিজয়ী করা। সুতরাং সকল ইসলামী দলের সমন্বয়ে মজবুত ইসলামী প্ল্যাটফর্ম গড়ে তুলতে হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর ঐতিহাসিক চরমোনাইর বার্ষিক মাহফিল স্টেজে আয়োজিত জাতীয় ওলামা ও সুধী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, চরমোনাই মাহফিলের মঞ্চ হক্কানী ওলামার মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে। ওলামার সহযোগিতা থাকলে কোনো ষড়যন্ত্র এ কাফেলা ধ্বংস করতে পারবে না ইন শা আল্লাহ।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম বলেন, ওলামায়ে কেরাম যে প্ল্যাটফর্মে থেকে ভালো কাজ করছে আমাদের সকলের উচিত সে ভালো কাজের প্রশংসা করা। ওলামায়ে কেরামের চোখ কান খোলা না থাকলে উম্মাহ ধ্বংস হয়ে যাবে। সুতরাং ওলামার চোখ-কান খোলা রাখতে হবে। বর্তমান সরকারের ওপর সওয়ার হয়ে একদল নাস্তিক সিলেবাসের মাধ্যমে জাতিকে নাস্তিক বানানোর পাঁয়তারা করছে। ওলামায়ে কেরাম ঐক্যবদ্ধ হলে এ ধরনের যেকোনো ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করে দেয়া যাবে ইন শা আল্লাহ। দলের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান বলেন, আমরা জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠায় কাজ করছি। আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে সর্বদলীয় জাতীয় সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের জন্য আমরা ধারাবাহিক কর্মসূচি পালন করছি। নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত¡াবধায়ক সরকারের দাবি শান্তি প্রতিষ্ঠায় যথেষ্ট নয়। নির্বাচন কমিশন জাতীয় নির্বাচনের জন্য লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করতে পারলেই কেবল আমরা জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবো ইন শা আল্লাহ।

ওলামা সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শায়খ জাকারিয়া (রহ.) ইসলামী রিসার্চ সেন্টারের মহাপরিচালক মুফতী মিজানুর রহমান সাঈদ বলেন, অতীতের আলেমদের মীমাংসিত বিষয় যেমন আক্বিদা, আমল ও রাজনীতির বিষয়ে নতুন কিছু মানা যাবে না। চরমোনাই বুজুর্গরা যেভাবে চলছেন এভাবে কাজ চলতে থাকলে একসময় ঐক্য হয়ে যাবে ইন শা আল্লাহ। ঢালকা নগরের পীর সাহেব মাওলানা জাফর আহমদ বলেন, ঐক্য করতে হবে কুরআন ও হাদীসের দৃষ্টিতে। শরীয়তের সাথে ঐক্য না হলে কাজ হবে না। এবি পার্টির সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু বলেন, আলেম ওলামার কাজ শুধু মসজিদ-মাদরাসায় নয়, দেশের কোন সেক্টর কোথায় কিভাবে চলবে তার নির্দেশ দেয়া ও দেখাশোনা করা তাদের দায়িত্ব।

ওলামা সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের উপদেষ্টা সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. আক্কাস আলী সরকার, কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. বেলাল নুর আজিজী, খুলনা দারুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মোশতাক আহমেদ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সাবেক যুগ্মসচিব জোবায়ের আহমেদ, মুফতী মুহিবুল্লাহ, বিশিষ্ট আলেম মাওলানা ফরিদ উদ্দিন আল মোবারক, ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দ-এর সিনিয়র শিক্ষক আল্লামা শাহ আলম, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ডিন প্রফেসর ড. ফারুখ আহমেদ, মুফতী হাফিজুর রহমান গোপালগঞ্জ, বাংলাদেশ কওমী মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতী গোলামুর রহমান, হাটহাজারী মাদরাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস মুফতী মাওলানা জোনায়েদ বিন জালাল, মাওলানা ইসমাইল মাদানী, মাওলানা আকরাম হোসেন, হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ, মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, মাওলানা আশিকুল্লাহ, শায়খুল হাদীস মুফতী আজিজুল হক, মাওলানা হোসাইন আহমেদ, জাতীয় দ্বীনি শিক্ষা বোর্ডের যুগ্ম মহাসচিব মুফতি তাজুল ইসলাম, মুফতী মজিবুর রহমান, মাওলানা ইকবাল সিরাজী, অধ্যাপক সৈয়দ বেলায়েত হোসেন, শ্রমিক আন্দোলন সেক্রেটারী জেনারেল মাওলানা খলিলুর রহমান, ইসলামী আন্দোলন ওমান কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মাওলানা মীর আহমদ মিরু, কাতার ধর্ম মন্ত্রণালয়ের মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা আব্দুল বাতেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি মাওলানা বজলুর রহমান খান, ফেনী ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদের সভাপতি মুফতী ইউসুফ কাসেমী এবং ছাত্রনেতা শরিফুল ইসলাম রিয়াদ। আগামী শনিবার সকাল সাড়ে ৮টায় হযরত পীর সাহেব চরমোনাই’র আখেরি বয়ানের মধ্য দিয়ে তিন দিনব্যাপী বিশাল এ মাহফিলের কার্যক্রম সমাপ্ত হবে।

 

 



 

Show all comments
  • Mohmmed Dolilur ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৪:২৬ এএম says : 1
    ইসলামী দল তো দেশে 92% মুসলমান সবাই,সেখানে মজবুত আবার কি,আবার দল গুলি সেটা কি,ইসলাম তো ইসলাম আবার গুলি এই সমস্ত না বলে,92%মুসলমান গুলি মজবুত হওয়া দরকার বলতে হবে,কেউ বুকের আবার কেউ পিঠের এইটি কি এখন ও সময় আছে 92%মুসলমান এক হতে বলেন,হয়ে ইসলামী শাসন কায়েম করেন,দলগুলি,আর দয়া করে বলবেন না,মুসলমান সবাই মুসলমান।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohmmed Dolilur ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৪:২৬ এএম says : 1
    ইসলামী দল তো দেশে 92% মুসলমান সবাই,সেখানে মজবুত আবার কি,আবার দল গুলি সেটা কি,ইসলাম তো ইসলাম আবার গুলি এই সমস্ত না বলে,92%মুসলমান গুলি মজবুত হওয়া দরকার বলতে হবে,কেউ বুকের আবার কেউ পিঠের এইটি কি এখন ও সময় আছে 92%মুসলমান এক হতে বলেন,হয়ে ইসলামী শাসন কায়েম করেন,দলগুলি,আর দয়া করে বলবেন না,মুসলমান সবাই মুসলমান।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পীর সাহেব চরমোনাই


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ