Inqilab Logo

বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবন ১৪৩১, ১০ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

আফগানিস্তানে জাতিসংঘের শীর্ষ নারী কর্মকর্তা

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ জানুয়ারি, ২০২৩, ৯:৩২ এএম

বেসরকারি সংস্থাগুলোর (এনজিও) নারীদের কাজে সরকারের নিষেধাজ্ঞা নিয়ে তালেবানের সঙ্গে আলোচনার জন্য আফগানিস্তান সফর করছে জাতিসংঘের শীর্ষ নারী কর্মকর্তার নেতৃত্বে এক প্রতিনিধি দল। এই সফরে নারীদের কাজ ও শিক্ষার অধিকার ছাড়াও কয়েকটি চলমান বিষয়ে কথা হবে।
এরই মধ্যে বুধবার কাবুলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমিন খান মুত্তাকির সঙ্গে দেখা করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূত ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল আমিনা মোহাম্মদ। প্রতিনিধি দলে তাঁর সঙ্গে ইউএন উইমেনের প্রধান সিমা বাহৌসও রয়েছেন বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।
এ সফরেই জাতিসংঘের ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল আফগানিস্তানের পরিস্থিতি নিয়ে কূটনীতিবিদ, প্রবাসী আফগান ও ওআইসির সঙ্গে আলোচনার জন্য তুরস্ক, কাতার ও পাকিস্তানে যাত্রাবিরতি করবেন বলে রয়টার্স জানিয়েছে।
কাবুলের মহাসচিবের দূতের সঙ্গে তালেবান সরকারের মন্ত্রীর সাক্ষাতের কথা তুলে ধরে জাতিসংঘ এক বিবৃতিতে বলেছে, নারীদের কাজ করার অধিকার এবং শিক্ষার সুযোগ নিয়ে ‘সুস্পষ্ট সমঝোতার ইঙ্গিত’ মিলেছে।
আমিন খান মুত্তাকিকে উদ্ধৃত করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি না পাওয়া, তালেবান নেতাদের বিদেশ সফরে বিধিনিষেধ ও ব্যাংকিং লেনদেনে নিষেধাজ্ঞা থাকায় আমাদের নানা সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। এসব বিষয় আন্তর্জাতিক মহলকে সমাধান করতে হবে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের উচিত তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেওয়া।’ এছাড়া আফগানিস্তানে শিক্ষা ও স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে নারীদের কাজ করার সুযোগ থাকার কথাও তিনি তুলে ধরেন বলে বিবৃতিতে বলা হয়।
গত মাসে আফগানিস্তানে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক সব সংস্থার নারীদের কাজ করায় নিষেধাজ্ঞা দেয় তালেবান সরকার। ‘পোশাক পরার তালেবান রীতি না মানার’ কারণ দেখিয়ে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়। কদিন আগেই নারীদের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়া নিষিদ্ধ করা হয়।
এমন নির্দেশের পর দেশটিতে জাতিসংঘের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ বেশ কয়েকটি এনজিও কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। তবে গত সপ্তাহে স্বাস্থ্যের মতো কিছু খাতে নারীদের কাজ করার অনুমতি দেয় তালেবান। এরপর এনজিওর কাজ ধীরে ধীরে আবার শুরু হচ্ছে। সূত্র : বিবিসি



 

Show all comments
  • Mostafa kamal ১৯ জানুয়ারি, ২০২৩, ১০:৫৮ এএম says : 0
    Afgan people suffering for decades they do not bother Afgan people dying from cold or from flood they do nt bother. Now they have come to cry for Afgar women, I really do not have any words to express my anger about their stupidity. May Allah protect Afgan brothers from these enemies. Ameen.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আফগানিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ