Inqilab Logo

শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৭ বৈশাখ ১৪৩১, ১০ শাওয়াল ১৪৪৫ হিজরী

যেকোন মুহুর্তে সংবাদ আসবে সরকার প্রধান পদত্যাগে বাধ্য হয়েছে : খুলনায় দুদু

খুলনা ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১১ জানুয়ারি, ২০২৩, ৪:২০ পিএম

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সময় শেষ। দেশের মানুষ জেগে উঠেছে, কখন কী হয় বলা যায় না। যদি পদত্যাগ না করেন এই বাংলাদেশের মানুষ আপনাকে পদত্যাগে বাধ্য করবে। জানুয়ারি, ফেব্রুয়ারি যেকোন মুহুর্তে সংবাদ আসবে এই সরকারের প্রধান পদত্যাগে বাধ্য হয়েছে। আমাদের দাবি একটাই-এই সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে। অথর্ব মাজাভাঙ্গা নির্বাচন কমিশন বাতিল করে নতুন করে কমিশন গঠন করতে হবে। আন্দোলনের মাধ্যমে এ সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করা হবে।
আজ বুধবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে খুলনা মহানগরীর কে ডি ঘোষ রোডে দলীয় কার্যালয় চত্বরে বিএনপির খুলনা বিভাগীয় গণঅবস্থান কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। বিএনপি নেতা দুদু বলেন, পুলিশ ও শাসক দলের ক্যাডার দিয়ে গনতন্ত্র মুক্তিকামী বিএনপির নেতাকর্মীদের আর দমিয়ে রাখা যাবে না। দেশের জনগণ এদেরকে প্রতিরোধ করতে মাঠে নেমে পড়েছে। তিনি অবিলম্বে সরকারকে পদত্যাগ ও সংসদ বিলুপ্ত করতে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের ব্যবস্থা দাবি জানান। খুলনা বিভাগীয় গণঅবস্থান মঞ্চ থেকে তিনি জানান, বিদ্যু, তেল, গ্যাসসহ দ্রব্যমুল্যবৃদ্ধির সীমাহীন উর্ব্ধগতির প্রতিবাদে আগামী ১৬ জানুয়ারি দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসুচি পালিত হবে। সেই কর্মসুচি থেকে সরকার পতনের পরবর্তী বৃহত্তর কর্মসুচি ঘোষণা করা হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক সংসদ সদস্য মেহেদী আহমেদ রুমি বলেন, জনবিচ্ছিন্ন এই সরকার এখন কাগজের বাঘ, দেশ এখন পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। এমপি মন্ত্রীরা পুলিশ ছাড়া চলাচল করতে পারছে না। কোন বাহিনীর সদস্য ছাড়া মাঠে নামলে বাংলার জনগনের রোষানলে তারা পালাবার পথ খুঁজে পাবে না।
বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) অনিন্দ্য ইসলাম অমিত বলেন, সরকারকে হটিয়ে গনতন্ত্র পুন:প্রতিষ্ঠা না হওয়া পর্যন্ত শহীদ জিয়ার সৈনিকেরা ঘরে ফিরবে না। ক্ষমতা দখলের জন্য নয়; দেশের মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আন্দোলন সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে।
খুলনা মহানগর বিএনপির আহবায়ক ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি সদস্য এড. শফিকুল আলম মনার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন বিএনপির তথ্য সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল। জেলা বিএনপির আহবায়ক আমীর এজাজ খান, মহানগর সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন ও জেলা সদস্য সচিব মনিরুল হাসান বাপ্পির পরিচালনায় গণঅবস্থান কর্মসুচিতে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন, ভারপ্রাপ্ত কোষাধ্যক্ষ মাহমুদ হাসান খান বাবু, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ওবায়দুর রহমান, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জয়ন্ত কুমার কুন্ডু, সহ প্রচার সম্পাদক শামীমুর রহমান শামিম, সহ তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক আমিরুজ্জামান শিমুল, সহ ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক অমলেন্দু দাশ অপু প্রমূখ।
এর আগে সকাল থেকে খুলনা মহানগর, জেলা ও বিভিন্ন জেলা থেকে আগত বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে কেডি ঘোষ রোডে জড়ো হতে শুরু করেন। গণ অবস্থান কর্মসুচিতে মহানগর ও বিভিন্ন জেলা থেকে আগত জাসাস নেতাকর্মীরা সরকার বিরোধী গণসঙ্গীত পরিবেশন করেন। সমাবেশ থেকে কারাবন্দি কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ সহ খুলনা বিভাগের ১০ জেলার নেতাকর্মীদের নি:শর্ত মুক্তির দাবি জানানো হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দুদু


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ