Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবন ১৪৩১, ১৮ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

শিক্ষামন্ত্রী ভারতের প্রেসক্রিপশন বাস্তবায়নে মাঠে নেমেছেন

জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের মানববন্ধন কর্মসূচিতে একাত্মতা প্রকাশ মুফতী ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ নভেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

নাস্তিক্যবাদী ও বিধর্মী এজেন্ডা বাস্তবায়নে ৯২% মুসলমানদের দেশের শিক্ষা মন্ত্রণালয় কাজ করছে বলে অভিযোগ করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই। তিনি বলেন, শিক্ষামন্ত্রী ভারতের প্রেশক্রিপশন বাস্তবায়নে আদাজল খেয়ে মাঠে নেমেছেন। কিন্তু একটি কথা পরিস্কার করে বলতে চাই, যে জাতি দীর্ঘ নয় মাস সংগ্রাম করে দেশ স্বাধীন করেছে এবং আল্লাহর উপর আস্থা ও বিশ্বাস নিয়ে যুদ্ধ শুরু করেছিল, সে জাতিকে দমিয়ে রাখার কোন সুযোগ নেই। তিনি অবিলম্বে নাস্তিক্যবাদী ও ধর্মহীন শিক্ষা কারিকুলাম থেকে বাদ দিয়ে পূর্বের ন্যায় ইসলাম ধর্ম শিক্ষা ও দ্বীনিয়াত শিক্ষাকে বাধ্যতামূলক করার জোর দাবি জানান। অন্যথায় এ ব্যাপারে কোন ছাড় দেয়া হবে না। কঠোর থেকে কঠোর আন্দোলন গড়ে উঠবে।

গতকাল রোববার দুপুরে পুরানা পল্টনস্থ ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সাথে আলোচনাকালে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, যুগ্ম মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, প্রচার ও দাওয়াহ বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, দফতর সম্পাদক মাওলানা লোকমান হোসাইন জাফরী, মাওলানা নেছার উদ্দিন, যুবনেতা ইঞ্জিনিয়ার আতিকুর রহমান মুজাহিদ, শ্রমিকনেতা এইচএম ছিদ্দিকুর রহমান ও মুফতী মোস্তফা কামাল, শহিদুল ইসলাম কবির।

তিনি বলেন, জাতীয় শিক্ষা কারিকুলাম, শিক্ষাক্রমে যে পাঠ্যসূচি প্রণয়ন করা হয়েছে তা পীর আউলিয়ার বাংলাদেশের শিক্ষা-সংস্কৃতি ও চেতনা বিরোধী। একটি মুসলিম দেশের জনগণ ইসলাম বিরোধী কারিকুলাম করবে না। শিক্ষা ক্ষেত্রে ইসলামী শিক্ষা বাধ্যতামূলক করার দাবিতে জনগণ প্রয়োজনে সরকার পতনের আন্দোলনে নামতে বাধ্য হবে।
জমিয়াতুল মোদার্রেছীন ঘোষিত ১৩ দফার প্রতি পুনঃসমর্থন ঘোষণা করে আজকে দেশব্যাপী মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচীর প্রতি একাত্বতা প্রকাশ করে উল্লেখিত কর্মসূচি সফল করতে মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান। মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম বলেন, বিরানব্বই ভাগ মুসলমানের চিন্তা চেতনা বিরোধী শিক্ষা কারিকুলাম দেশবাসী ঘৃণাভরে প্রত্যাখান করবে।

এদিকে, জাতীয় শিক্ষক ফোরাম এর কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা এবিএম জাকারিয়া, সেক্রেটারী জেনারেল অধ্যাপক নাসির উদ্দিন খান ও অধ্যাপক আব্দুস সবুর নাস্তিক্যবাদী ও বিধর্মীদের এজেন্ডা বাস্তবায়নে সরকারসহ শিক্ষামন্ত্রী কাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন। এক যৌথ বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ
বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন ঘোষিত ১৩ দফার প্রতি পুনঃসমর্থন ঘোষণা করেন এবং আজ দেশব্যাপী অনুষ্ঠিতব্য মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচীর প্রতি একাত্বতা প্রকাশ করে উল্লেখিত কর্মসূচি সফল করতে দেশের ধর্মপ্রাণ জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ