Inqilab Logo

বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবন ১৪৩১, ১০ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

ফিলিপাইনে বন্যা-ভূমিধসে নিহত ৪২, নিখোঁজ বহু

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ অক্টোবর, ২০২২, ১০:৩৯ পিএম

মৌসুমি ঘূর্নিঝড় ‘নালগায়ে’র প্রভাবে প্রবল বর্ষণ ও তার ফলে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে ফিলিপাইনের মাগিন্দানাও প্রদেশে ৪২ জন নিহত হয়েছেন; এবং এখন পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছেন আরও বহুসংখ্যক। মাগিন্দানাও প্রদেশটি ফিলিপাইনের যে প্রশাসনিক অঞ্চলের অধীন, সেই ব্যাংসামোরো স্বায়ত্ত্বশাসিত অঞ্চলের স্থানীয় সরকার ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নাগিব সিনারিমবো বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। -রয়টার্স, সিবিসি

ফিলিপাইন সাগরে গত কয়েকদিন ধরে চলা একটি নিম্নচাপ ঘুর্ণঝড়ে রূপ নিয়ে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলের দিকে এগিয়ে আসছে। তার প্রভাবে বৃহস্পতিবার রাত থেকে দক্ষিণের প্রদেশগুলোসহ ফিলিপাইনের বিভিন্ন অঞ্চলে শুরু হয়েছে বৃষ্টি। তবে দক্ষিণের প্রদেশগুলোতে রীতিমতো ‘অভূতপূর্ব’ মাত্রার বৃষ্টি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সিনারিমবো।

রয়টার্সকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলা সংক্রান্ত যাবতীয় প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিলাম, কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত বৃহস্পতিবার থেকে প্রবল বৃষ্টি শুরু হয়েছে। এই অঞ্চলে এত বৃষ্টি এর আগে আমি দেখিনি।’ মাগিন্দানাও প্রদেশের দাতো ওদিন সিনসুয়াত, দাতো ব্লাসিন সুয়াত ও উপি প্রদেশে আকস্মিক বন্যা ও ভূমিধসে নিহতের ঘটনা ঘটেছে উল্লেখ করে সিনারিমবো বলেন, ‘দাতু ওদিন সিনসুয়াত শহরে পানিতে ডুবে এবং ভূমিধসে ২৭ জন মারা গেছে, দাতু ব্লাসিনসুয়াত শহরে ভূমিধসে মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের এবং উপি শহরে মারা গেছে ৫ জন। তাদের মরদেহ উদ্ধারও করা হয়েছে।’

এছাড়া এখনও বহুসংখ্যক মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘প্রবল বৃষ্টি, পাহাড়ি ঢল এবং সেই ঢলের সঙ্গে ভেসে আসা কাদা, গাছ ও পাথরের কারণে অনেক এলাকায় সড়ক নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে। ফায়ার সার্ভিস ও দুর্যোগ ব্যবস্থানা বিভাগের উদ্ধারকর্মীদের অনুমান, এসব জঞ্জালের তলায় আরও অন্তত ৪০ জনের মরদেহ চাপা পড়েছে। আমরা একান্তমনে প্রার্থনা করছি— এই অনুমান যেন সত্য না হয়।’

শুক্রবার সারাদিন মাগিন্দানাও প্রদেশের বিভিন্ন শহর ও গ্রামে উদ্ধার-তৎপরতা চলেছে। সন্ধ্যার পর রাতের আঁধার নেমে আসায় আর তৎপরতা চালানো যায়নি, তবে শনিবার ভোর থেকে ফের উদ্ধারকাজ চলবে বলে জানিয়েছেন সিনারিমবো। এছাড়া মাগিন্দানাওয় থেকে ইতোমধ্যে হাজার হাজার মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তবে মোট কতো লোক দুর্যোগ কবলিত হয়েছে তার সঠিক সংখ্যা তখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন তিনি।

ভৌগলিক অবস্থানের কারণেই প্রাকৃতিক দুর্যোগের হিসেবে বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানয় দেশ ফিলিপাইন। দেশটিতে প্রায়ই ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানে এবং তার প্রভাবে বারবার বন্যা ও ভূমিধসের ঘটনা ঘটে। ফিলিপাইনের আবহাওয়া দপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, গড়ে প্রতিবছর দেশটিতে ২০টির মতো টাইফুন বা ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফিলিপাইন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ