Inqilab Logo

বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবন ১৪৩১, ১০ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

ফিলিপাইন থেকে অর্থ উদ্ধারে নতুন তদন্ত চায় বাংলাদেশ

প্রকাশের সময় : ১ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি
দেড় কোটি ডলার ফেরত পাওয়ার আশা বাংলাদেশের -জন গোমেজ
অর্থনৈতিক রিপোর্টার : বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের চুরি যাওয়া অর্থ ফিলিপাইন থেকে উদ্ধারে পুনরায় তদন্ত শুরু করতে দেশটির সিনেটকে আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ। ম্যানিলায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জন গোমেজ স্থানীয় গণমাধ্যমকে এতথ্য জানান। সিনেটের নতুন প্রেসিডেন্ট আবারো শুনানি করবেন, এমন আশা সরকারের। আর দুই সপ্তাহের মধ্যে দেড় কোটি ডলার বাংলাদেশ ফেরত পাবে। তবে খোয়া যাওয়া ৮ কোটি ১০ লাখ ডলারের পুরোটা ফেরত পাচ্ছে না বাংলাদেশ, এটি অনেটাই নিশ্চিত বলেও জানান জন গোমেজ।
গত ফেব্রুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকে গচ্ছিত বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরি করে হ্যাকাররা। এই অর্থ চলে যায় ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকে। আর সেখান থেকে স্থানান্তর হয় কয়েকটি ক্যাসিনোতে। চুরি যাওয়া এ অর্থ উদ্ধারে দায়িত্ব নেয় ফিলিপাইন সরকার। তদন্তে মে পর্যন্ত ছয় দফা শুনানি করে সিনেটের ব্লু-রিবন কমিটি। কিন্তু জুনে দেশটিতে নতুন সরকার গঠন হওয়ায় আলোর মুখ দেখেনি আগের কমিটির তদন্ত রিপোর্ট। তবে শুনানিতে কমিটি নির্দেশনা দেয়, অর্থ উদ্ধার করে বাংলাদেশকে ফেরত দেয়ার। সিনেট দ্রুত শুনানি শেষ করায় অসন্তুষ্টি ছিল বাংলাদেশের। তা প্রকাশও পেল তদন্তের জন্য পুনরায় শুনানি করতে নতুন কমিটির কাছে আবেদন করার মধ্য দিয়ে।
ম্যানিলায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জন গোমেজ একটি দৈনিককে জানিয়েছেন, বাংলাদেশ সরকার আশা করছে, সিনেটের নতুন প্রেসিডেন্ট অ্যাকুইলিনো কোকো পিমেনটেন আবারো এই শুনানি শুরু করবেন। কারণ তিনি জানেন, পাচার হওয়া অর্থ বাংলাদেশের এবং তা ফেরত দিতে হবে। গেল সিনেট কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী, খোয়া যাওয়া অর্থের মধ্যে দেড় কোটি ডলার ১৫ আগস্টের মধ্যে ফেরত পাওয়ার আশা করছেন রাষ্ট্রদূত। জানান, বাংলাদেশ সরকারের আর একটিমাত্র নথি মুদ্রা পাচারবিরোধী সংস্থা এএমএলসির কাছে পৌঁছলেই এই অর্থ পাওয়া যাবে। তবে চুরি যাওয়া পুরো অর্থ ফেরত পাচ্ছে না বাংলাদেশ। এমনটা স্বীকার করে জন গোমেজ বলেন, জব্ধকরা অন্তত ৩ কোটি ৪৫ লাখ ডলার ফেরত পেতে নতুন প্রশাসনের সাথে কাজ করছেন তারা। মার্কিন ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকও বাংলাদেশের অর্থ উদ্ধারে ফিলিপাইনের কেন্দ্রীয় ব্যাংককে সব ধরনের সহায়তা করার অনুরোধ জানিয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফিলিপাইন থেকে অর্থ উদ্ধারে নতুন তদন্ত চায় বাংলাদেশ
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ