Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৪ জিলক্বদ ১৪৪৫ হিজরী

সমকামিতা অপরাধ নয়: পোপ ফ্রান্সিস

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০২৩, ৯:০১ এএম | আপডেট : ১১:০০ এএম, ২৬ জানুয়ারি, ২০২৩

ক্যাথলিক খ্রিস্টানদের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস সমকামিতাকে অপরাধ হিসেবে মানতে চান না। যেসব দেশ এটিকে অন্যায় বলে আইন করেছে তিনি তাদের সমালোচনা করেছেন।

পোপ ফ্রান্সিস বলেন, ঈশ্বর তার সমস্ত সন্তানকে, ঠিক তারা যেমন, তেমন করেই তাদের ভালোবাসেন। ক্যাথলিক বিশপ, যারা আইনটি সমর্থন করেন তাদের প্রতি তিনি আহ্বান জানান, যেন তারা সমকামী সম্প্রদায়ের লোকদের গির্জায় স্বাগত জানান।

মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা এপির সঙ্গে এক সাক্ষাত্কারে পোপ বলেন, 'সমকামী হওয়া কোন অপরাধ নয়।'

ফ্রান্সিস স্বীকার করেছেন বিশ্বের কিছু কিছু অংশে ক্যাথলিক বিশপরা এমন আইন সমর্থন করেন, যা সমকামিতাকে অপরাধী হিসেবে গণ্য করে।

তবে অপরাধ বা ক্রাইম না বললেও সমকামিতাকে পাপ কাজ বলে উল্লেখ করেছেন পোপ ফ্রান্সিস। তিনি সাংস্কৃতিক পটভূমিতে এই ধরনের মনোভাবকে দায়ী করে বলেন, প্রত্যেকের মর্যাদাকে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য বিশেষ করে বিশপদের একটি পরিবর্তনের প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হবে।

দ্য হিউম্যান ডিগনিটি ট্রাস্টের মতে, বিশ্বব্যাপী প্রায় ৬৭টি দেশ কিংবা বিচারব্যবস্থায় সম্মতিমূলক সমকামী যৌন কার্যকলাপকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়। এর মধ্যে ১১টি দেশে এই অপরাধে মৃত্যুদণ্ডের বিধান আছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যেখানে আইন প্রয়োগ করা হয় না, সেখানেও সমকামীদের বৈষম্যের দৃষ্টিতে দেখা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রে ২০০৩ সালের সুপ্রিম কোর্টের রায়ে সমকামিতার বিরুদ্ধে আইনকে অসাংবিধানিক ঘোষণা করা সত্ত্বেও এখনও এক ডজনেরও বেশি রাজ্যে তাত্ত্বিকভাবে অ্যান্টি-সোডোমি আইনের উল্লেখ রয়েছে।

ফ্রান্সিস ক্যাথলিক চার্চের প্রশ্নোত্তর উদ্ধৃতি দিয়ে বলেছেন, সমকামীদের অবশ্যই এখানে স্বাগত জানাতে হবে এবং তাদের যথাযথ সম্মান করতে হবে। তাদের একঘরে করে রাখা কিংবা তাদের প্রতি বৈষম্য করা উচিত নয়।

পোপ ফ্রান্সিস আরও বলেন, সমকামিতার ক্ষেত্রে অপরাধ এবং পাপের মধ্যে পার্থক্য করা দরকার।

২০০৮ সালে ভ্যাটিকান জাতিসংঘের একটি ঘোষণায় স্বাক্ষর করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল। ওই ঘোষণাতে জাতিসংঘ সমকামিতাকে অপরাধমুক্ত করার আহ্বান জানিয়েছিল। সূত্র: এপি



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পোপ ফ্রান্সিস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ