Inqilab Logo

রোববার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ২১ শাবান সানি ১৪৪৫ হিজরী

চালককে হত্যা করে মোটরসাইকেল ছিনতাই: মৃতদেহ উদ্ধার

বরগুনা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১১ জানুয়ারি, ২০২৩, ৬:০৫ পিএম

বরগুনার আমতলী পৌরসভার ছুরিকাটা গ্রামের ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল চালক বেল্লাল গাজী (৩৫) নামে এক যুবকের মরদেহ বুধবার সকালে কলাপাড়া উপজেলার রজপাড়া গ্রাম থেকে উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। বেল্লাল আমতলী পৌরসভার ছুরিকাটা গ্রামের সফেজ গাজীর পুত্র।

পুলিশ এবং নিহত বেল্লালের স্বজনদের সূত্রে জানা গেছে, বেল্লাল গাজী (৩৫) ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেল চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করত। মঙ্গলবার রাতে সে আমতলী চৌরাস্তা থেকে যাত্রী নিয়ে কলাপাড়া যাওয়ার পর ওই রাতে সে বাসায় ফিরে আসেনি। রাতে এবং সকালে তার ব্যবহৃত মুঠোফোনে কল করেও বন্ধ পাওয়া পাওয়া যায়।

বুধবার সকাল ১১ টার সময় কলাপাড়া থানা পুলিশ স্থানীয়দের নিকট থেকে খবর পেয়ে টিয়াখালী ইউনিয়নের রজপাড়া গ্রামের বাশার সিকদারের বাড়ীর সামনে অবস্থিত মৌমিতা খালের পার থেকে ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেল চালক বেল্লালের মুখমন্ডল থেতলানো রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করে। তবে এখনো তার প্লাটিনা মোটরসাইকেল এবং ব্যবহৃত মুঠোফোন উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

নিহত বেল্লালের বড় ভাই দুলাল গাজী জানান, আমার ভাই বেল্লালকে শত্রুতাবশত কেহ হত্যা করে মোটরসাইকেলটি ছিনতাই করে নিয়ে গেছে। তার মুখমন্ডল থেতলানো, চোখে এবং হাতে আঘাতের চিহ্ন এবং গলায় রশি পেচানো ছিল। দুলাল গাজী তদন্ত সাপেক্ষে এঘটনার বিচার দাবি করেন।

নিহত বেল্লালের স্ত্রী মারিয়া বেগম বলেন, আমি দুই সন্তান নিয়ে কিভাবে বাঁচবো, কিভাবে সন্তানদের ভরণপোষণের ব্যবস্থা করব।

কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ জসিম উদ্দিন মুঠোফোনে জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালীর মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরো জানান, লাশের মুখমন্ডল এবং চোখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে শত্রুতাবশতঃ কেউ তাকে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মৃতদেহ উদ্ধার


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ