Inqilab Logo

শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৫ জিলক্বদ ১৪৪৫ হিজরী

ভোলায় পুলিশ - বিএনপির সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপির ৭৪ জনের নাম উল্লেখ করে ২ টি মামলা করেছে পুলিশ

ভোলা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১ আগস্ট, ২০২২, ৪:০৫ পিএম

ভোলায় পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষের ঘটনায় জেলা বিএনপির সভাপতি ও সম্পাদকসহ ৪ শতাধিক নেতাকর্মীর নামে দুটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। এতে নাম উল্লেখ করে ৭৪ জন এবং অজ্ঞাতনামা আরও ৩৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে।
রোববার (৩১ জুলাই) রাতে ভোলা সদর মডেল থানায় এ দুটি মামলা দায়ের করা হয়। ভোলা সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মো. জসিম বাদী হয়ে পুলিশের উপর হামলার এবং স্বেচ্ছাসেবক দল কর্মী হত্যার ঘটনায় এ মামলা দায়ের করা হয়। এ সংঘর্ষের ঘটনায় এখন পর্যান্ত ৭ জনকে আটক করা হয়েছে।
ভোলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন বলেন, আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।এদিকে স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী আ: রহিম হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বিএনপির পক্ষ থেকে পাল্টা আরেকটি মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম নবী আলমগীর। তবে গতকালের ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে বিরাজ করছে।জেলা বিএনপির অফিস বন্ধ রয়েছে। কোন নেতা কর্শীদের এলাকায় দেখা যাচ্ছে না।মামলার গ্রেফতার আতঙ্কের ভয়ে অনেকেই গা ডাকা দিয়েছে এমনটাই মনে করছে সাধারন মানুষ। তবে গতকালের সংঘর্ষের নিয়ে এক সাধারন পথচারী জানান তারা ভোলায় খুব শান্তিতে ছিল কিন্তু হঠাৎ করে এমন কি হল যে শান্তিপূর্ন ভোলা অশান্তির সৃস্টি হল।তারা ভোলায় শাস্তির জনপথ চায়।উল্লেখ
কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসাবে জেলা বিএনপির প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশে বাধা দেওয়াকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও বিএনপি কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে একজন নিহত ও অর্ধশতাধিক আহত হয়। রোববার (৩১ জুলাই) ভোলায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) বিক্ষোভ সমাবেশকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে দলের নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনায় মো. আব্দুর রহিম নামে বিএনপির একজন নিহত হয়েছেন। ছয় পুলিশ সদস্যসহ আহত হয়েছেন অন্তত শতাধিক নেতাকর্মী।
এর মধ্যে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলম এর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় বর্তমানে ঢাকায় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
এদিকে পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম ( বিপিএম, পিপিএম) এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানিয়েছেন নিহত রহিম কিভাবে মারা গেছেন সে ব্যাপারে তিনি নিশ্চিত নন। তবে মাথায় রক্ত ক্ষরণ জনিত কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে চিকিৎসক তাকে জানিয়েছেন এবং গতকালের সংঘর্ষে পুলিশের ৬/৭ জন সদস্যও আহত হয়েছেন তারা চিকিৎসাধীন রয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভোলা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ