Inqilab Logo

শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ০৭ যিলহজ ১৪৪৫ হিজরী

মুক্তিযুদ্ধে সময় ছিলেন ৮ বছরের শিশু এখন ভাতাভোগী বীর মুক্তিযোদ্ধা, তদন্ত শুরু

খুলনা ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৩ মার্চ, ২০২৩, ৫:৪৬ পিএম

খুলনার তেরখাদা উপজেলায় মাত্র ৮ বছর বয়সে ভারতে গিয়ে ট্রেনিং নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ করেছেন মর্মে সনদ জমা দিয়ে মুক্তিযোদ্ধা তালিকাভূক্ত গাউস মোল্লার বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আসাদুজ্জামান গত ২৬ ফেব্রুয়ারি উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলামকে প্রধান করে ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেন। তদন্ত কমিটি আগামী ৫ মার্চ (রোববার) থেকে কাজ শুরু করেছে। তদন্ত কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার মো. আব্দুর রউফ, তেরখাদা সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার বাবুল মন্ডল ও বারাসাত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কে এম আলমগীর হোসেন। তদন্ত কমিটিকে আগামী ৭ মার্চের মধ্যে মতামতসহ তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য বলা হয়েছে।

তেরখাদা উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি বিষয়টি প্রকাশ পেলে উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের কোলা পাটগাতী গ্রামের মো. ইমান উদ্দিন মোল্লার ছেলে গাউস মোল্লাকে তেরখাদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আসাদুজ্জামান শুনানীর জন্য ডাকেন। শুনানীতে গাউস মোল্লা মুক্তিযোদ্ধা সনদের স্বপক্ষে তথ্য প্রমান দাখিল করেন। সেখানে ২০১৬ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন কর্তৃক গাউস মোল্লাকে প্রদত্ত জাতীয় পরিচয় পত্র (আইডি নং-১৯৬৩৪৭৯৫১২৭৪৬৭৩৪৩) রয়েছে। যেখানে নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী জাতীয় পরিচয় পত্রের আইডি নম্বরের প্রথম ৪টি সংখ্যা জন্ম সাল নির্দেশ করে। সে মোতাবেক গাউস মোল্লার জন্ম সাল ১৯৬৩। অন্যদিকে, ২০১৯ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন কমিশন কর্তৃক গাউস মোল্লাকে প্রদত্ত স্মার্ট জাতীয় পরিচয় পত্রে (আইডি নং-৭৭৭২৯১৩০৫৪) জন্ম সাল ১৯৬৩ সালের ১ জানুয়ারি উল্লেখ রয়েছে। এ হিসেবে মুক্তিযুদ্ধের সময় তার বয়স ছিল ৮ বছর।

তদন্ত কমিটির প্রধান উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. শরীফুল ইসলাম জানান, আমি গাউস মোল্লার মুক্তিযোদ্ধা সনদের সঠিকতা যাচাই বিষয়ে তদন্তের চিঠি পেয়েছি। ইতিমধ্যে তদন্ত কমিটির অন্য সদস্যের সাথে করনীয় বিষয় সম্পর্কে আলোচনা করেছি। আগামী ৫ মার্চ থেকে আমরা তদন্তের কাজ শুরু করবো। আশা করছি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে পারবো।

তেরখাদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আসাদুজ্জামান জানান, ২৬ ফেব্রুয়ারি তেরখাদার উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. শরীফুল ইসলামকে প্রধান করে ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ৭ মার্চের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনে গাউস মোল্লার বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়ে সত্যতা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ পাঠানো হবে। মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে তিনি জানান।



 

Show all comments
  • Suman ৪ মার্চ, ২০২৩, ১২:৩৪ পিএম says : 0
    এগুলো কে ২৬শে মার্চ জাতির সামনে সংসদ ভবনের সামনে এনে ক্ষমা প্রার্থনা করানো এবং এর সমস্ত সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হউক
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Mujibur Rahman ৫ মার্চ, ২০২৩, ১১:০২ পিএম says : 0
    ভূয়া মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সঠিক মুক্তিযোদ্ধাদের গ্রহনযোগ্যতা ও মান সন্মান ক্ষুন্ন হচ্ছে। এদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া প্রয়োজন।
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Mujibur Rahman ৫ মার্চ, ২০২৩, ১১:০২ পিএম says : 0
    ভূয়া মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সঠিক মুক্তিযোদ্ধাদের গ্রহনযোগ্যতা ও মান সন্মান ক্ষুন্ন হচ্ছে। এদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া প্রয়োজন।
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Mujibur Rahman ৫ মার্চ, ২০২৩, ১১:০১ পিএম says : 0
    ভূয়া মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সঠিক মুক্তিযোদ্ধাদের গ্রহনযোগ্যতা ও মান সন্মান ক্ষুন্ন হচ্ছে। এদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া প্রয়োজন।
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Mujibur Rahman ৫ মার্চ, ২০২৩, ১১:০২ পিএম says : 0
    ভূয়া মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সঠিক মুক্তিযোদ্ধাদের গ্রহনযোগ্যতা ও মান সন্মান ক্ষুন্ন হচ্ছে। এদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া প্রয়োজন।
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Mujibur Rahman ৫ মার্চ, ২০২৩, ১১:০১ পিএম says : 0
    ভূয়া মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সঠিক মুক্তিযোদ্ধাদের গ্রহনযোগ্যতা ও মান সন্মান ক্ষুন্ন হচ্ছে। এদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া প্রয়োজন।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Aflak Uddin Fakir ৫ মার্চ, ২০২৩, ৭:২৯ পিএম says : 0
    জাতীয় পরিচয়পত্রে প্রচুর ভুল আছে সঠিক তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া উচিত।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Aflak Uddin Fakir ৫ মার্চ, ২০২৩, ৭:২৯ পিএম says : 0
    জাতীয় পরিচয়পত্রে প্রচুর ভুল আছে সঠিক তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া উচিত।
    Total Reply(0) Reply
  • Basudeb Sinha ৫ মার্চ, ২০২৩, ১০:৫২ এএম says : 0
    আরও অনেক ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা রয়েছে
    Total Reply(0) Reply
  • Kazi Md. Jamal Uddin ৬ মার্চ, ২০২৩, ১০:২৩ এএম says : 0
    এগুলো কে ২৬শে মার্চ জাতির সামনে সংসদ ভবনের সামনে এনে ক্ষমা প্রার্থনা করানো এবং এর সমস্ত সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হউক
    Total Reply(0) Reply
  • এ কে এম আব্দুল্লাহ ৬ মার্চ, ২০২৩, ৪:২৫ পিএম says : 0
    অভিযোগ কি শুধু বয়স নিয়ে ? তাহলে যাচাই করে দেখুন মুক্তিযোদ্ধা হতে সর্বনিম্ন বয়স সীমা কত? ৮ বছর কিংবা তার চেয়ে কম বয়সের কোন মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে বিবেচিত হয়েছে কি না ? মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পাওয়ার অন্যান্য সূচকগুলো কি?সেই সূচকে তার স্ট্যাটাস কি? সেটিও জানা দরকার। অত:পর যদি একশো তে একশো হয় তাহলে তাকে বীর মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি দিতে বাধা কোথায় ? আমরা প্রকৃত মুক্তিযীদ্ধাদের স্বীকৃতি ও সম্মান দেয়ার পক্ষে অন্যথায় নয়। প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধারস্বীকৃত সংজ্ঞা বা ক্রাইটেরিয়া কি সেটাও সকলের জ্ঞাতার্থে প্রকাশিত হওয়া উচিত। দেশেত অভ্যন্তরে থেকে যারা জানবাজী রেখে সহযোগিতা করেছে, আশ্রয় দিয়েছে, সুরক্ষা দিয়েছে,অন্ন বাসস্থান চিকিৎসা দিয়ে সেবা দিয়েছে তাদের কেন তালিকা তৈরি করা হচ্ছে না। কেন তাদের সহযোগী মুক্তি যোদ্ধার স্বীকৃতি দেয়া হচ্ছে না ? কেনই বা তাদের সম্মানি ভাতা দেয়া হবে না? তারা যদি মুক্তি যোদ্ধাদের আশ্রয় না দিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলতো তা হলে কি দেশ স্বাধীন সম্ভব হতো। অভ্যন্তরীণ সহযোগী স্বেচ্ছাসেবকদের জীবনবাজি, আত্মত্যাগ প্রমাণ করে তারাও স্বাধীনতার জন্য মুক্তিযুদ্ধের শক্তি। এ-ই সব প্রশ্নের কৌতুহলের মূল্যায়ন করার এখনই সময়। নইলে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে বিতর্ক চলতেই থাকবে যেটা কখনোই কা'রো কাম্য নয়।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তদন্ত কমিটি

২১ জানুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ