Inqilab Logo

বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবন ১৪৩১, ১০ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

স্টেডিয়ামে আফগান ফ্যানদের তাণ্ডবে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক সমালোচনা

সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১১:০২ পিএম

টানটান উত্তেজনার ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে হারের পর এশিয়া কাপ থেকে বিদায় নিয়েছে আফগানিস্তান ও ভারত। ম্যাচ হারের পর আফগান ভক্তরা গ্যালারির চেয়ার ভাঙতে শুরু করেন। এমনকি পাকিস্তান সমর্থকদের ওপর চড়াও হয় তারা।

গ্যালারিতে আফগান সমর্থকদের ওই তাণ্ডবে সমালোচনার ঝড় বইছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। শিষ্টাচারবহির্ভূত এমন আচরণের কড়া নিন্দা জানিয়েছেন ক্রিকেট প্রেমীরা।

গ্যালারিতে হাতহাতির ঘটনায় পাকিস্তানের বেশ কয়েকজন সমর্থক আহত হয়। তবে, আইসিসি এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নিবেন বলে জানিয়েছেন।

আফগান সমর্থকদের সমালোচনা করে ফেসবুকে একজন পাঠক লিখেছেন, ‘‘আফগানিস্তানের প্রতিটা খেলোয়ার অহংকারী।আর বাংলাদেশের কিছু ভারতপন্থি মানুষের অনেক খুশি লাগতেছে। কিন্তু যতোই যাই করো পাকিস্তানের পক্ষে আছি থাকবো। ভারতের ... উদ্ধার করে ছারবো ইনশাআল্লাহ।’’

রফিকুল ইসলাম নামে আরেকজন পাঠক লিখেছেন, ‘‘পাকিস্তান সিনিয়র দল, তারা ক্রিকেটের শুরু থেকেই আছে এবং বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন সে হিসেবে আফগান ক্রিকেট নতুন। সিনিয়রদের আরো ধৈর্য্যশীল আচরণ আশা করি। ওয়াশিম আকরামের কাছ থেকে তাদেরকে অনেক কিছু শিখতে হবে।আফগানরা জিতুক বা হারুক তাদের প্রশংসা করা উৎসাহ দেয়া, সহোযোগিতা করা পাকিস্তানের কর্তব্য। বিশ্বকাপে বাংলাদেশের কাছে পাকিস্তান হেরে গিয়ে ওয়াসিম আকরাম বাংলাদেশের প্রশংসা যেমন করেছে তেমনি টেস্ট সিকৃতিও দেয়।’’

আনোওয়ার খান নামে এক ক্রিকেটপ্রেমী লিখেছেন, ‘‘এরকম পরিবেশ কখনো কেউ কাম্য করে না। আশা করি এর সুষ্ঠু বিচার করা হবে এদেরকে আইনের আওতায় এনে কঠিন থেকে কঠিন শাস্তি দেওয়া হোক যাতে করে ভবিষ্যতে আর কেউ এরকম জঘন্য কাজ করতে না পারে।’’

আফগানদের নিন্দা জানিয়ে জাহিদ আল হাসান নামে একজন লিখেছেন, ‘‘ভারতের গৃহপালিত দল, বয়স কমানো বুইড়া আফগানিস্তানের কিছু ক্রিকেটার যেরকম অভদ্র, তাদের সমর্থক গুলো তারচেয়ে অনেক বেশি অভদ্র। খেলা শেষে স্টেডিয়ামের কি অবস্থা টা নাই করলো। এসব সমর্থকদের নিষিদ্ধ করা হোক।’’

কামরুল ইসলাম লিখেছেন, ‘‘আফগানরা ভালো খেলে তবে তারচেয়ে তারা বেশি অহংকার করে।ওদের কিছু কিছু খেলোয়াড় চরম বেয়াদপ।ওরা ভুলে গেছে ওদের ক্রিকেটের উন্নতি করার জন্য এই পাকিস্তান বেশি সাহায্য করেছিলো।’’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সোশ্যাল মিডিয়া


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ