Inqilab Logo

রোববার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১, ০৭ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

চুরির অভিযোগে এ কেমন বিচার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ মার্চ, ২০২১, ১২:০১ এএম

চুরির অভিযোগে এক যুবককে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্মম নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় কয়েকজন প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে। রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের বিলহিজলী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতিত যুবকের নাম অচিন্ত কুমার মন্ডল (২৫)। গত বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনায় তার মা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার দিবাগত রাতে পার্শ¦বর্তী রেজাউল ইসলাম ওরফে রেজার বাড়িতে কে বা কারা চুরির ঘটনা ঘটায়। গত রোববার রেজাউল, জিয়া, ময়েন উদ্দিনসহ তাদের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আমার বাড়িতে এসে হামলা করে। আমার ছেলে অচিন্ত কুমার মন্ডল (২৫) কে ঘুম ডেকে তাকে চুরির অপবাদ দিয়ে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যায়। আমি ও আমার স্বামী বাধা দিলে কিল-ঘুষি, লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দিয়ে তাদের হাতে থাকা কাঠের বাটাম দিয়ে বেধড়ক মারধর করে। এরপর আমার ছেলেকে নিয়ে যায়। পরে আমার ছেলেকে রেজা তার লিচু বাগানে নিয়ে লোহার রড, কাঠের বাটাম, হাতুড়ি দিয়ে আমার ছেলেকে গাছের সাথে বেঁধে অমানবিকভাবে শারীরিক নিযার্তন করে।
পরে মারাত্মক আহত অবস্থায় বালিয়াকান্দি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার অবস্থার অবনতি হলে মঙ্গলবার সকালে তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। অভিযোগকারী নমিতা মন্ডল বলেন, মারধরে ছেলের পায়ের আঙুল ভেঙ্গে গেছে। শরীরের বিভিন্ন স্থানে রয়েছে অসংখ্য ক্ষতের চিহ্ন। আমার ছেলে যদি চুরি করে, থানায় দিতো, এর জন্য আইন আছে। আমি সঠিক বিচার দাবি করছি।
অভিযুক্ত রেজাউল ইসলাম রেজা বলেন, অচিন্ত মন্ডল একজন চিহ্নিত চোর। সে আমার বাড়ি থেকে চুরি করেছে। স্থানীয় লোকজন তাকে গণধোলাই দিয়েছে। নারুয়া ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম বলেন, ‘এক যুবককে নির্যাতনের বিষয়ে শুনেছেন, গাছের সঙ্গে বেঁধে কিনা সেটা জানেন না। তবে ওই যুবক চুরির কারণে জেল খেটেছে বলেও জানান তিনি। বালিয়াকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারিকুজ্জামান বলেন, ‘ এ ঘটনা থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। আইন নিজের হাতে তুলে নেয়ার ক্ষমতা কারো নাই। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে।’



 

Show all comments
  • মোঃ দুলাল মিয়া ১৩ মার্চ, ২০২১, ২:৩৩ এএম says : 0
    এই ভাবে মারতে হবে এইটি কি কেন বই পুস্তকে লেখা আছে না কি।অভাবে মানুষ বহু অন্যায় করে ।কিন্তু সে একজন মানুষ ।
    Total Reply(0) Reply
  • Aziz ১৩ মার্চ, ২০২১, ৭:৩৩ পিএম says : 0
    Eta thik noi. Take police custody te dewa jeto. Evabei varote muslim nirjaton kora hoi ar mere fela hoi.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চুরির অভিযোগ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ