Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবন ১৪৩১, ০৯ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ৫ মার্চ, ২০২৩, ১২:০১ এএম

রমজানে দ্রব্যমূল্য

রহমত, বরকত ও নাজাত নিয়ে রোজার মাস আমাদের একেবারে নিকটবর্তী। এটি মুসলমানদের অন্যতম বড় ধর্মীয় ইবাদত। প্রতিবছরই এই সময়টায় দেখা যায় নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের চাহিদা বেড়ে যায়। এ সুযোগে অসাধু ব্যবসায়ীরা বাজারে যথেষ্ট পণ্যের যোগান থাকলেও কৃত্রিম সংকট তৈরি করে পণ্যের দাম বৃদ্ধি করে দেয়। রোজা আসা আর নিত্যপণ্যের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়া যেন স্বাভাবিক ঘটনায় পরিণত হয়েছে। এভাবে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধির শিকার হচ্ছে মধ্যবিত্ত থেকে শুরু করে নি¤œ আয়ের মানুষগুলো। খেটে খাওয়া মানুষদের জীবনযাত্রার ব্যয় মেটাতে নাভিশ্বাস ফেলতে হচ্ছে। প্রতিবছর এই একই চিত্র কেন আমাদের দেখতে হয়? কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ী উচ্চমূল্যে বিক্রির আশায় পণ্য সরবরাহ বন্ধ করে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে। তাই অসৎ ও মুনাফালোভী ব্যবসায়ীদের আইনের আওতায় এনে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে পারলে এ সমস্যা থেকে অনেকাংশে উত্তরণ সম্ভব। যদি পণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণে যথাযথ মনিটরিং ও পর্যবেক্ষণ করা যায় তাহলে অসাধু ব্যবসায়ীরা আর সাহস করবে না। তাই পণ্যের দাম স্বাভাবিক রাখতে প্রশাসনের পাশাপাশি জনসচেতনতাও সমানভাবে জরুরি।

মিসবাহুল ইসলাম
শিক্ষার্থী, দারল হেদায়া ইসলামিক ইনস্টিটিউট, বারিধারা ঢাকা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন