Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবন ১৪৩১, ০৯ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

লাতিন আমেরিকায় মার্কিন প্রভাব হ্রাস

চীন-ইকুয়েডর মুক্তবাণিজ্য চুক্তি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ জানুয়ারি, ২০২৩, ১১:৫২ পিএম

ইকুয়েডর ও চীন একটি মুক্তবাণিজ্য চুক্তি দিকে এগিয়ে যাওয়ার সাথে সাথে ওয়াশিংটনে উদ্বেগ বাড়তে শুরু করেছে যে, যুক্তরাষ্ট্র লাতিন আমেরিকায় তার প্রভাব হারাচ্ছে। ইকুয়েডরের সাথে এই চুক্তিটি চীনে ইকুয়েডরের রপ্তানির মূল্যকে ১শ’ কোটি মার্কিন ডলারে উন্নীত করবে বলে আশা করা হচ্ছে, যেখানে চীনা সংস্থাগুলিকে কাঁচামালের একটি বাপক সংগ্রহকে উপলব্ধ করার প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে। চিলি, কোস্টারিকা এবং পেরুর সাথে চুক্তি স্বাক্ষরের পর ইকুয়েডরের সাথে এই চুক্তিটি হবে লাতিন আমেরিকার দেশের সাথে চীনের চতুর্থ চুক্তি।

সেপ্টেম্বরে চীন ইকুয়েডরের ৪শ’ ৪০ কোটি ডলারের ঋণ পুনর্গঠন করতে সম্মত হয়, যার প্রেক্ষিতে দেশটি ইকুয়েডরকে ২০২৫ সাল পর্যন্ত ১শ’ কোটি ডলারের ত্রাণ প্রদান করবে। চীনে ইকুয়েডরের সামগ্রিক রপ্তানি গত বছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় ৩০ শতাংশ বেড়েছে। জানুয়ারি থেকে নভেম্বরের মধ্যে চীনে ইকুয়েডরের রপ্তানি ৬শ’ ২০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে এবং প্রথমবারের মতো দক্ষিণ আমেরিকার দেশ হিসেবে বাণিজ্য উদ্বৃত্ত অবলোকন করেছে। চীনের শুল্ক তথ্য অনুসারে, একই সময়ে চীনের রপ্তানি ৫শ’ ৮০ কোটি মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে। চীন-ইকুয়েডর উষ্ণ সম্পর্ক লাতিন আমেরিকাতে চীনের ক্রমবর্ধমান প্রভাব মোকাবেলার লক্ষ্যে ইকুয়েডরের সাথে বাণিজ্য আলোচনা পুনরায় চালু করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে উৎসাহিত করছে।

তামা, লোহা আকরিক এবং তেলের উত্তোলনযোগ্য মজুদের কারণে ইকুয়েডর উল্লেখযোগ্য আগ্রহের বিষয়। চীনের জন্য লাতিন অঞ্চল কৌশলগত ও বৈচিত্র্যময় খনিজগুলিকে আহোরণের সুযোগ দেয়, যা দেশটির অর্থনীতিতে জ্বালানী হিসেবে প্রয়োজন, বিশেষ করে পশ্চিমদের সাথে এর সম্পর্কের অবনতির কারণে। ওয়াশিংটন ডিসি-ভিত্তিক ‘কার্নেগি এনডাউমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল পিস’ অনুসারে, খনি খাতে এবং অন্যান্য অবকাঠামো প্রকল্পে নিরবচ্ছিন্ন চীনা বিনিয়োগ ইকুয়েডরের জন্য অত্যাবশ্যক, যেটি সাম্প্রতিক বছরগুলিতে তেলের দাম কমে যাওয়ার পরে আন্তর্জাতিক অর্থায়ন পেতে লড়াই করেছে।

চীন ২০২২ সালের প্রথম সাত মাসে তেল বহির্ভূত পণ্যের জন্য ইকুয়েডরের বৃহত্তম রপ্তানি গন্তব্য হিসাবে যুক্তরাষ্ট্রকে ছাড়িয়ে গেছে। মার্কিন সিনেটর বব মেনেনডেজ এবং রব পোর্টম্যান গত সপ্তাহে বলেন, ‹আরও মার্কিন সম্পৃক্ততা ছাড়াই। যুক্তরাষ্ট্র মার্কিন কোম্পানিগুলির জন্য বাজারের সুযোগ হারানোর এবং চীনের তুলনায় এই অঞ্চলে আমাদের প্রভাবের সম্ভাব্য অবনমনের ঝুঁকিতে রয়েছে। সূত্র : সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন-ইকুয়েডর
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ