Inqilab Logo

বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবন ১৪৩১, ১০ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের জয়ের বিকল্প নেই

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ অক্টোবর, ২০২২, ১২:০০ এএম

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে আজ নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড মুখোমুখি হচ্ছে। মেলবোর্নে বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টায় শুরু হবে গ্রুপ-১ এর এই ম্যাচটি। সেমিফাইনালের দৌঁড়ে ভালোভাবে টিকে থাকতে হলে এ ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই দু’দলের। এই গ্রুপের ছয় দলই ইতোমধো দু’টি করে খেলা শেষ করেছে। দুই ম্যাচে সর্বোচ্চ ৩ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে আছে নিউজিল্যান্ড। ২ পয়েন্ট রান রেটে এগিয়ে থেকে শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয়, ইংল্যান্ড তৃতীয়, আয়ারল্যান্ড চতুর্থ ও অস্ট্রেলিয়া আছে পঞ্চমস্থানে। আর ১ পয়েন্ট পেয়ে তালিকায় সবার শেষে আছে আফগানিস্তানের নাম। ফলে এই গ্রুপের ছয় দলেরই সেমিফাইনালে যাওয়ার ভালো সুযোগ আছে। তবে বাকী ৩ ম্যাচে পা ফসকালেই বিপদে পড়তে হবে দলগুলোকে। সেমির পথে ভালোভাবে টিকে থাকতে হলে এখন জয়ের বিকল্প নেই দলগুলোর। গ্রুপের তৃতীয় ম্যাচ থেকেই বড় পরীক্ষায় নামতে হচ্ছে দলগুলোকে।
গত আসরের চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া বড় হার দিয়ে এবারের বিশ্বকাপ শুরু করলেও দ্বিতীয় ম্যাচেই দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে তারা। এশিয়ার সেরা শ্রীলঙ্কাকে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ৭ উইকেটে হারায় অজিরা। বোলারদের নৈপুন্যের পর ১৮ বলে ৫৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়াকে বড় জয় এনে দেন মার্কোস স্টয়নিস। এ ম্যাচে ১৭ বলে হাফসেঞ্চুরি করে টি-টোয়েন্টিতে অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে দ্রুততম হাফসেঞ্চুরি করার রেকর্ড গড়েন স্টয়নিস। অন্য দিকে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৫ উইকেটের জয় দিয়ে এবার বিশ্বকাপ শুরু করা ইংল্যান্ড পরের ম্যাচেই অঘটনের শিকার হয়। দ্বিতীয় ম্যাচে বৃষ্টি আইনে আয়ারল্যান্ডের কাছে ৫ রানে হেরে যায় ইংলিশরা।
রান রেটের দিকে না তাকিয়ে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রয়োজনীয় জয় তুলে নিতে চান অজি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। ম্যাচের আগে গতকাল তিনি বলেন, ‘প্রথম ম্যাচ হারের স্মৃতি ভুলে আমরা এখন জয়ের মধ্যে আছি। এই ধারাটা ধরে রাখতে চাই। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সেমির পথে ভালোভাবে টিকে থাকতে হলে এ ম্যাচে জিততেই হবে। নয়তো পরের দিকে বড় চাপের মধ্যে পড়তে হবে। পরের ম্যাচের দিকে না তাকিয়ে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জিততেই মাঠে নামবো আমরা।’
একই ভাবনা ইংল্যান্ডেরও। দলের টপ-অর্ডার ব্যাটার ডেভিড মালান বলেন,‘আয়ারল্যান্ডের কাছে হারটি ভুলে গেছি আমরা। আমাদের সব মনোযোগ এখন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটি। নিজেদের কন্ডিশনে অবশ্যই শক্তিশালী দল অস্ট্রেলিয়া। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে তা দেখিয়েছে তারা। আমরা নিজেদের সেরাটা খেলতে পারলে জয় পাওয়া সম্ভব।’
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের আগে অস্ট্রেলিয়ার জন্য বড় ধাক্কা স্পিনার এডাম জাম্পার পর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন উইকেটরক্ষক ম্যাথু ওয়েড। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়েডের খেলা অনিশ্চিত। ওয়েড না খেললে বড় সমস্যায় পড়বে অজিরা। দলে দ্বিতীয় উইকেটরক্ষক কেউ নেই। ইনজুরিতে পড়ে বিশ্বকাপ দল থেকে আগেই ছিটকে পড়েন জশ ইংলিস। এখন ওয়েড খেলতে না পারলে উইকেটের পেছনে কাকে দায়িত্ব দেয়া হবে তা নিয়ে আলাদাভাবে টিম মিটিংয়ে বসতে হবে অস্ট্রেলিয়াকে।
বিশ্বকাপ শুরুর আগের সপ্তাহে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ইংল্যান্ডের কাছে ২-০ ব্যবধানে হেরেছে অস্ট্রেলিয়া। টি-টোয়েন্টিতে ২৩বার মুখোমুখি হয়েছে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। যেখানে জয়ের পাল্লা ভারী ইংলিশদেরই। ১১ম্যাচে জিতেছে ইংল্যান্ড। ১০টিতে জয় পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। আর দুইটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের জয়ের বিকল্প নেই
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ