Inqilab Logo

রোববার, ১৬ জুন ২০২৪, ০২ আষাঢ় ১৪৩১, ০৯ যিলহজ ১৪৪৫ হিজরী

গুলিস্তানে বিস্ফোরণ, যা জানালেন ডিএমপি কমিশনার

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ মার্চ, ২০২৩, ১০:২২ পিএম

রাজধানীর গুলিস্তানের সিদ্দিক বাজার এলাকায় ভয়াবহ বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক। পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের যারা এক্সপার্ট আছেন, তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত করে দেখেছেন, এটা কোনো নাশকতামূলক ঘটনা না।

খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন, নানা কারণে বিস্ফোরণ হতে পারে। কখনো মিথেন গ্যাস, কখনো এসির গ্যাস। এটা গ্যাসজনিত কোনো বিস্ফোরণ হতে পারে। এরপরও তদন্ত করে দেখা যাবে যে, এটা নাশকতা নাকি দুর্ঘটনা।

মঙ্গলবার (৭ মার্চ) বিকেল ৪টা ৫০ মিনিটের দিকে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণের সঠিক কারণ এখনও জানা যায়নি।

জানা গেছে, সিদ্দিকবাজারে যে ভবনে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে, ওই ভবনের নাম ‘ক্যাফে কুইন’। ক্ষতিগ্রস্ত ভবনটির সাত তলার নিচ তলায় ৮ থেকে ৯টি স্যানিটারির দোকান ছিল। বিস্ফোরণে সবগুলো দোকানই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ ছাড়া দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলাতে এসব দোকানের গোডাউন ছিল। অন্যদিকে চতুর্থ তলা থেকে শুরু করে সাত তলা পর্যন্ত ছিল আবাসিক বাসাবাড়ি। তবে এসব জায়গায় কতটি পরিবার কিংবা মানুষজন ছিল, এখনও তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ফায়ার সার্ভিসের সদর দপ্তরের মিডিয়া সেলের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাজাহান শিকদার জানান, বিস্ফোরণে সাত তলা একটি স্যানিটারি মার্কেট-ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে ভবনে কোনো কেমিক্যাল বা বিস্ফোরক ছিল না।

ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা বলছে, ভবনটির ভেতরে আরও আহত কেউ আটকে পড়েছে কি না, তা খুঁজে দেখা হচ্ছে। তবে বাণিজ্যিক ভবন হওয়ায় ভেতরে অনেকের থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

আহতদের নিয়ে একের পর এক অ্যাম্বুলেন্স ঢুকছে ঢাকা মেডিকেল কলেজে। জরুরি বিভাগের সামনে থেকে শুরু করে বাইরের সড়ক পর্যন্ত আহত এবং নিহতদের স্বজনদের আহাজারিতে ভারী হয়ে উঠছে পরিবেশ।

বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পার্শবর্তী ভবনগুলোও। ভেঙে পড়েছে অনেক ভবনের কাঁচ। দুর্ঘটনার সময় ঘটনাস্থলের আশেপাশে থাকা অনেকেই হতাহত হয়েছেন। ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সঙ্গে স্থানীয়রা যুক্ত হয়ে রিকশা, ঠেলাগাড়ি, ট্রাক, গাড়ি ও অ্যাম্বুলেন্সসহ যে যেভাবে পারছে আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে পাঠাচ্ছে।

এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৬ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহত প্রায় দুই শতাধিক।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ