Inqilab Logo

রোববার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৪ শাবান সানি ১৪৪৫ হিজরী

নোয়াখালীতে পুলিশের সাথে গুলি বিনিময়, অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেপ্তার-৫

নোয়াখালী জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৫:৩২ পিএম

নোয়াখালীর সদর ও বেগমগঞ্জ উপজেলা পৃথক অভিযান চালিয়েছ পুলিশ। এসময়

সন্ত্রাসী কার্যক্রমের প্রস্তুতি নেওয়ার সময় মানিক (৩০), ইসমাইল (২৮), রুবেল
(২৬), নাজমুল (১৮) ও রোবেল হোসেন রবিন (২৪) নামের চারজনকে গ্রেপ্তার করা
হয়। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় একটি একনলা বন্দুক, একটি এলজি, একটি
পাইপগান, এক রাউন্ড কার্তুজ, একটি রামদা, একটি ছুরি, দুটি লোহা-স্টিলের
পাত ও একটি প্রাইভেটকার।

মঙ্গলবার দুপুরে অস্ত্রসহ ৪জনকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন, জেলা পুলিশ
সুপার মো. শহীদুল ইসলাম। এরআগে সোমবার দিবাগত রাত থেকে মঙ্গলবার ভোর
পর্যন্ত পৃথকস্থানে এ অভিযান চালায় পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছেন, কুমিল্লা জেলার দেবিদ্ধার থানার ধামতি এলাকার
মোশারফ হোসেনের ছেলে মানিক, চান্দিনা থানার বাতাঘাসি দক্ষিণ পাড়ার
ইউনুছের ছেলে ইসমাইল হোসেন, দাউদকান্দি থানার বেকিনগর এলাকার বেলাল
হোসেনের ছেলে রুবেল, মারুকা এলাকার জজ মিয়ার ছেলে নাজমুল ও বেগমগঞ্জ
উপজেলার আমান উল্যাহপুর ইউনিয়নের কোয়ারিয়া গ্রামের আব্দুল মান্নান
আজিজের ছেলে রোবেল হোসেন রবিন।

পুলিশ জানায়, সোমবার গভীর রাতে বেগমগঞ্জের আমানউল্যাহপুর ইউনিয়নের
গোবিন্দেরখিল গ্রামের দিদারুল আলমের বাড়ি এলাকায় একুশে ফেব্রুয়ারিকে
কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনার জন্য একদল অস্ত্রধারি অবস্থান করছে।
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এমন তথ্য পেয়ে ওইস্থানে অভিযান চালায় বেগমগঞ্জ
থানা পুলিশ। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে শীর্ষ
সন্ত্রাসী সবুজের নেতৃত্বে পুলিশের ওপর গুলি ছুঁড়তে থাকে সন্ত্রাসীরা। কোন
উপায় না পেয়ে আত্মরক্ষার্থে পুলিশও চার রাউন্ড শর্টগানের গুলি ছুঁড়ে তাদের
ছত্তভঙ্গ করে দেয় এবং ঘটনাস্থল থেকে রোবেলকে একটি বন্দুক, একটি পাইপগান
ও এক রাউন্ড কার্তুজ সহ গ্রেপ্তার করে।

এদিকে মঙ্গলবার ভোরে নোয়াখালী পৌর এলাকার চুল্লার দোকান এলাকার নাহার
ভবনের পাশে একটি গাড়ি নিয়ে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে একদল ডাকাত।
এমন খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় অভিযান চালায় সুধারাম থানা
পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাত দলে থাকা কয়েকজন পালিয়ে গেলেও
গাড়ি এবং গাড়িতে থাকা অস্ত্র সহ চার জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের বিরুদ্ধে
অস্ত্র আইনে, ডাকাতি ও সন্ত্রাসী কার্যক্রমের প্রস্তুতির ঘটনায় উভয় থানায়
পৃথক মামলা দায়ের করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন
থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। বেগমগঞ্জে পুলিশের ওপর গুলির ঘটনায় অভিযুক্ত
সবুজ বাহিনীর প্রধান সবুজ সহ তার বাহিনীর অন্য সদস্যদের গ্রেপ্তারের জন্য
অভিযান চলমান রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গুলিসহ গ্রেপ্তার
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ