Inqilab Logo

বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবন ১৪৩১, ১০ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

ড. মাহফুজুর রহমানের বক্তব্য মানহানিকর: পপি

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৬:৫২ পিএম | আপডেট : ৮:৩৮ পিএম, ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

‘সাহসী যোদ্ধা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত নায়িকা সাদিকা পারভীন পপি। চলচ্চিত্রটিতে অভিনয়ের সময় শুটিং সেটে উপস্থিত ছিলেন বেসরকারী টেলিভিশন এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমান। সেদিন পপির মেকআপ আর্টিস্টের মেকআপ ভালো না লাগায় উপস্থিত ড. মাহফুজুর রহমান পপির মেকআপ ঠিক করে দেন। এ সময় একটি স্থিরচিত্র তোলা হয়। সেই ছবিটি এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। শুধু তাই নয়, এই ছবিটি প্রকাশ করে পপি ড. মাহফুজুর রহমান সম্পর্কে বলেছেন তিনি আমার মেকআপ আর্টিস্ট। এমনটাই দাবি ড. মাহফুজুর রহমানের। তাইতো বিষয়টি নিয়ে পপির উপর বেশ চটেছেন এই শিল্পপতি। তবে পপিও কম যান না। সংবাদমাধ্যমে তিনি নিজের অবস্থানটাও পরিষ।কার করছেন। দিয়েছেন পাল্টা বক্তব্য।
‘আমি এমন কোনো কাজ করিনি, যে কারণে আমাকে তার পা ধরে ক্ষমা চাইতে হবে। তিনি এমন বাজে বক্তব্য না দিলেই পারতেন। যদি তার কাছে বিষয়টি ভালো না লাগে তাহলে তিনি আমার কাছে একবার শুনতে পারতেন আমি এমন কিছু বলেছি কিনা। এখন যুগ বদলেছে। কে কোথায় কিভাবে কি করবে, আর তার দায় নিতে হবে আমাকে। কেনো? বিষয়টা এক প্রকার চিলে কান নেওয়ার মতোই। তিনি আমার কাছে একবার না শুনেই বাজে বক্তব্য দিয়েছেন। এটা আমার কাছে মোটেও ভালো লাগার নয়। সত্যতা যাচাই না করেই সরাসরি আমাকে অভিযুক্ত বানিয়ে যাচ্ছেতাই ভাষায় বক্তব্য দেবেন সেটাতো ঠিক নয়। তার এই বক্তব্যের জন্য শুধু পপি একা নয়, পুরো নারী জাতি ছোট হয়েছে। উল্টো তার ক্ষামা চাওয়া উচিত। তিনি যে মন্তব্যগুলো করেছেন সেটা মানহানিকর। তিনি কী আমাকে কোনো প্রমাণ দেখাতে পারবেন? আমি কোথায় এই ছবিটি প্রকাশ করেছি। তিনি যে কারণে আমাকে ক্ষমা চাইতে বলছেন সেটা এমদনই ভিত্তিহীন বিষয়। চাইলে আমি আইনি ব্যবস্থা নিতে পারি তার বিরুদ্ধে। কিন্তু আমি সেটা করবো না। কারণ আমি তাকে সম্মানের চোখে দেখি। তার সঙ্গে আমার বেশ কিছু কাজ করা হয়েছে। সেই স্থান থেকেই আমি তার এসব মন্তব্যে মাথা ঘামাতে চাই না।’
‘কুলি’র এই নায়িকা আরো বলেন, ‘আমি এই নোংরা বিষয়টিকে নিয়ে আর বেশি কথা বাড়াতে চাই না। কারণ এসব বিষয়ে যতো কথা বলা হবে ততইটাই গন্ধ ছড়াবে চারদিকে। আমি বিশ্বাস করি তিনি তার এসব বক্তব্যের জন্য অনুতপ্ত হবেন। আমি তাকে (ড. মাহফুজুর রহমান) বলবো উপযুক্ত প্রমাণসহ যেন পরবর্তিতে এমন ধরনের বক্তব্য দেন।’
অন্যদিকে গেল ৪ ফেব্রুয়ারি সোমবার সন্ধ্যায় এটিএন বাংলার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পপিকে নিয়ে মন্তব্য করেন ড. মাজফুজুর রহমান। তিনি বলেন, ‘পপি একটা হারামজাদী। একদিন একটি চলচ্চিত্রের শুটিয়ে পপির মেকআপ ঠিক করে দিয়েছিলাম। এটা সত্যি। কিন্তু তার জন্য আমি পপির মেকআপ আর্টিস্ট সেটাতো সে বলতে পারে না। সে বলেছে আমি নাকি তার মেকআপ আর্টিস্ট। এগুলো নিয়ে সংবাদও হয়েছে। সে ফেসবুকে এটা লিখলো কোন বুদ্ধি থেকে? এ জন্য পপিকে আমার পাঁ ধরে ক্ষমা চাইতে হবে।’
এসময় চ্যনেলটির কর্মকর্তাদের তিনি নির্দেশও দেন। বলেন, ‘এই মেয়েকে যেন এটিএনের আশেপাশেও না দেখি।’
উল্লেখ্য, সাদেক সিদ্দিকী পরিচালিত ‘সাহসী যোদ্ধা’য় পপির বিপরীতে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক আমিন খান।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ড. মাহফুজুর - পপি
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ