Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১, ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫ হিজরী

আমি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মচারী না

ঢাবি অধ্যাপক অহিদুজ্জামান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১২:০০ এএম

বিনা মূল্যে পাঠ্যবইয়ের ভুল-অসংগতি চিহ্নিত করে সংশোধনসংক্রান্ত কমিটিতে না জানিয়ে সদস্য করায় সেই কমিটিতে কাজ করবেন না বলে জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক এবং নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি মো. অহিদুজ্জামান।
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওপরক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত একটি লোক যোগাযোগ করেননি। আমি কি ওনাদের (শিক্ষা মন্ত্রণালয়) কর্মচারী যে একটি চিঠি দিয়ে দিল আর কাজ করব? আমি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মচারী না।

বিতর্কের মুখে পাঠ্যবইয়ের ভুলভ্রান্তি চিহ্নিত করে সংশোধন এবং এতে কারও কোনো গাফিলতি ছিল কি না, খতিয়ে দেখতে গত মঙ্গলবার দুটি কমিটি গঠন করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ বিষয়ে দুটি আলাদা আদেশ জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে বিশেষজ্ঞ কমিটির প্রধান করা হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক মো. আবদুল হালিমকে। আর প্রশাসনিক তদন্ত কমিটির প্রধান করার সিদ্ধান্ত হয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব খালেদা আক্তারকে। বিশেষজ্ঞ কমিটিতে প্রথমে অধ্যাপক মো. অহিদুজ্জামানকে প্রধান করার আলোচনা হলেও তা পরিবর্তন করা হয়। পরে তাকে কমিটিতে সদস্য হিসেবে রাখা হয়।

এই পরিবর্তনের কারণেক্ষুব্ধ হন অধ্যাপক অহিদুজ্জামান। এ বিষয়ে তিনি বলেন, যত দূর তিনি শুনেছিলেন তাকে প্রধান করে এই কমিটি করার কথা। এরপর তারা (শিক্ষা মন্ত্রণালয়) সদস্য করেছে। কিন্তু ন্য‚নতম যোগাযোগ করেনি। এটি তো সৌজন্যতা। তিনি সিনিয়র শিক্ষক, কিন্তু তারা সম্মান করতে জানে না। এটা খুবই দুঃখজনক। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শিক্ষকদের সম্মান করতেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষকদের সম্মান করেন। এটা তাদের (শিক্ষা মন্ত্রণালয়) বুঝতে হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আদেশ অনুযায়ী সাত সদস্যবিশিষ্ট বিশেষজ্ঞ কমিটিকে সময় দেওয়া হয়েছে এক মাস। এ সময়ের মধ্যে তারা ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণির বইয়ে ভুল ও অসংগতি চিহ্নিত করে সংশোধনের বিষয়ে প্রয়োজনীয় সুপারিশ করবে। আর প্রশাসনিক তদন্ত কমিটিও সাত সদস্যের। তাদের তিন সপ্তাহ সময় দেওয়া হয়েছে। কমিটি এই দুই ক্লাসে বই নিয়ে গাফিলতি বা ইচ্ছাকৃত ভুল ছিল কি না তা দেখবে। এর আগে ২৪ জানুয়ারি রাজধানীতে এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি দুটি কমিটি গঠনের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছিলেন।###



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঢাবি অধ্যাপক অহিদুজ্জামান
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ