Inqilab Logo

বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ১০ শাবান সানি ১৪৪৫ হিজরী

বিতর্কিত ৫৭ ধারা সংশোধনে আইন মন্ত্রণালয়কে পরামর্শ দেবেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক

প্রকাশের সময় : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : আইসিটি অ্যাক্টের ৫৭ ধারা সংশোধনের জন্য আইন মন্ত্রণালয়কে পরামর্শ দেয়ার আশ্বাস দিয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক নিউ মিডিয়া বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে পাওয়া তথ্য থেকে সংবাদ তৈরির ক্ষেত্রে সাংবাদিকদের আরও সচেতন হবার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, কিছু কিছু জায়গায় ৫৭ ধারা নিয়ে সমস্যা হচ্ছে। আমি মনে করি অবশ্যই আইন থাকা দরকার। তবে এ আইনটির মাধ্যমে যাতে সাংবাদিকরা হয়রানির শিকার না হন সেজন্য তা সংশোধনের জন্য আইনমন্ত্রীকে পরামর্শ দেব। আইসিটি আইনটি ‘ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট-২০১৬’-তে একত্রীভূত হতে যাচ্ছে। বর্তমানে এটি ভেটিংয়ের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে আছে। এ আইনটি নিয়ে এখনও পরামর্শ দেয়ার সুযোগ রয়েছে বলেও জানান আইসিটি প্রতিমন্ত্রী।
এদিকে নিজস্ব ধারণা থেকে বেরিয়ে এসে সাংবাদিকতার মৌলিক জ্ঞান ব্যবহার করে সঠিক তথ্য পরিবেশনে সাংবাদিকদের পরামর্শ দেন সাংবাদিক নেতারা।
গতকাল বুধবার সকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রনি মিলনায়তনে ‘তথ্যপ্রযুক্তি, নিউ মিডিয়া ও গণমাধ্যমের বিবর্তন’ শিরোনামে সেমিনারের আয়োজন করে ডিআরইউ।
জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, প্রযুক্তি বিপ্লবের ক্ষেত্রে আমরা কয়েক দশক পিছিয়ে। তবে বর্তমানে প্রযুক্তির ক্ষেত্রে আমরা দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছি। ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্প বাস্তবায়ন এবং তা জনগণের দোরগড়ায় পৌঁছে দিতে গণমাধ্যম বড় ভূমিকা রাখছে বলে মনে করেন তিনি।
পলক বলেন, আমরা এখন আর প্রযুক্তিতে পিছিয়ে নেই। একদিন ছিল যখন আমরা ইন্টারনেট কী সেটা জানতাম না। কিন্তু এখন ছোট্ট একটি শিশুÑসেও বোঝে ইন্টারনেট কী। তিনি বলেন, ধর্মকে ব্যবহার করে যারা মানুষ হত্যা করে তারা মানুষ নয়। এরা যেমন সমাজের শত্রু, তেমনি দেশেরও শত্রু। শুধু তাই নয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্নকে তারা নস্যাৎ করে দিতে চায়। এজন্য তারা গভীর ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। কিন্তু তাদের কোনো ষড়যন্ত্রই সফল হবে না।
সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন ডিআরইউ সভাপতি জামাল উদ্দীন। সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ।
প্রতিমন্ত্রী ডিআরইউ মিডিয়া সেন্টারে ১১টি কম্পিউটার প্রদান এবং একটি মাল্টিমিডিয়া পাওয়ার প্রজেক্টর দেয়ার ঘোষণা দেন। অন্যদিকে ‘ডিআরইউ বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড’-এর জন্য আইসিটি বিষয়ে ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার জন্য ২টি পুরস্কারের অর্থ তার মন্ত্রণালয় থেকে সংস্থানের ঘোষণা দেন। এ দুটি পুরস্কারের মূল্যমান ঘোষণা করা হয় ৫০ হাজার টাকা করে।
বিএফইউজের একাংশের সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির যুগে এগিয়ে যাচ্ছে আমাদের গণমাধ্যম। সাংবাদিকতা একটি আধুনিক পেশা। তাই বলে এটা পোশাক-আশাকে নয়, সম্পূর্ণ বুদ্ধিমত্তার মাধ্যমে পরিচালিত হয়। সাংবাদিক হতে হলে বুদ্ধিজীবী হতে হবে, আর তথ্যপ্রযুক্তির সাথে সম্পৃক্ত হতে হবে। তবেই ভালো সংবাদকর্মী হওয়া সম্ভব। এছাড়া ভালো সাংবাদিক তারাই যারা অতীতকে ধারণ করে সামনে এগিয়ে যান।
সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাংবাদিক অজিত কুমার সরকার। এ প্রবন্ধের ওপর আলোচনায় নিউ মিডিয়ার প্রভাব, প্রসার, সুফল এবং অপপ্রয়োগের নানা দিক সম্পর্কে তুলে ধরেন সাংবাদিক নেতারা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিতর্কিত ৫৭ ধারা সংশোধনে আইন মন্ত্রণালয়কে পরামর্শ দেবেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ