Inqilab Logo

সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১, ০৮ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

হজের প্যাকেজ ৪ লাখ টাকা নির্ধারণে লিগ্যাল নোটিশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ মার্চ, ২০২৩, ১২:০০ এএম

হজের প্যাকেজ মূল্য ৪ লাখ টাকা করতে লিগ্যাল নোটিশ দেয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট ও কোরান স্টাডি সেন্টারের প্রধান সমন্বয়ক আশরাফ উজ জামান এ নোটিশ দেন। নোটিশ প্রাপ্তির ৭ দিনের মধ্যে আশু ব্যবস্থা না নিলে ধর্মমন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে।
অ্যাডভোকেট আশরাফ উজ জামান জানান, সরকারি ব্যবস্থাপনায় চলতি মৌসুমে হজের খরচ ৬ লাখ ৮৩ হাজার ১৮ টাকা নির্ধারণ করেছে সরকার। অন্যদিকে কোরবানি ছাড়াই এবার বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীদের জন্য সর্বনিম্ন খরচ নির্ধারণ করা হয়েছে ৬ লাখ ৭২ হাজার ৬১৮ টাকা। আগের বছর এটি ছিল ৫ লাখ ২২ হাজার ৭৪৪ টাকা। অর্থাৎ আগের বছরের চেয়ে দেড় লাখ টাকা বেড়েছে।

এ বিষয়ে দৈনিক ইনকিলাবসহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম প্রতিবেদন প্রকাশ করে। এসব প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশের ইতিহাসে হজের সবচেয়ে ব্যয়বহুল প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে এবার। সরকারি ও বেসরকারি হজ প্যাকেজে প্রায় ৭ লাখ টাকার মতো খরচ ধরা হলেও পশু কোরবানি ও খাবারের খরচসহ মোট ৮ থেকে সাড়ে ৮ লাখ টাকা লেগে যাবে।

গত ১৩ ফেব্রুয়ারি দৈনিক ইনকিলাবে প্রকাশিত ‘হজের ব্যয় আকাশচুম্বী’ শীর্ষক প্রতিবেদনে বলা হয়, হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া এবার অস্বাভাবিক হারে বাড়ছে। ২০২২ সালের হজে যাত্রীদের বিমান ভাড়া ছিল ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এবার হজের প্যাকেজে বিমান ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ১ লাখ ৯৭ হাজার টাকা। ২০২২ সালে হজের প্যাকেজ মূল্য ছিল ৫ লাখ ২৭ হাজার ৩৪০ টাকা। এবার হজ প্যাকেজের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৬ লাখ ৮৩ হাজার টাকা। এতে অনেক প্রাক-নিবন্ধিত হজযাত্রী ব্যয় বৃদ্ধির কারণে চূড়ান্ত নিবন্ধন না করে হজে টাকা তুলে নিয়ে যাচ্ছেন। তাদের কেউ কেউ বলছেন, এতো টাকা দিয়ে হজে যাওয়ার সামর্থ নেই। এ কারণে আমরা ওমরাহ পালন করবো। আটাবের মহাসচিব আব্দুস সালাম আরেফ ইনকিলাবকে বলেন, চলতি বছরের হজ প্যাকেজের উচ্চ মূল্য বৃদ্ধিতে আমরা হতবাক। পার্শ্ববর্তী দেশগুলোতেও হজের ব্যয় এতো বাড়েনি। আটাব মহাসচিব বলেন, ২০২২ সালে বাংলাদেশ থেকে হজ প্যাকেজের মূল্য ছিল ৫ লাখ ২৭ হাজার ৩৪০ টাকা। একই বছর ভারতের হজ প্যাকেজ ছিল বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৫ লাখ ৭৬৩ টাকা আর পাকিস্তানের হজ প্যাকেজের মূল্য ছিল বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৩ লাখ ৩১ হাজার ৭৫২ টাকা। চলতি বছর বাংলাদেশী টাকায় ভারতের হজ প্যাকেজ মূল্য হচ্ছে প্রায় ৫ লাখ ১৫ হাজার ৮৪৬ টাকা আর পাকিস্তান হজ প্যাকেজ মূল্য হচ্ছে ৩ লাখ ৫০ হাজার ৯৭২ টাকা। কোরবানি ছাড়াই এবার বাংলাদেশের হজ প্যাকেজ নির্ধারণ করা হয়েছে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৬ লাখ ৮৩ হাজার টাকা । এর মধ্যে বিমান ভাড়াই ধরা হয়েছে ১ লাখ ৯৭ হাজার টাকা।

প্রসঙ্গত: চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২৭ জুন পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে। এ উপলক্ষে গত ৯ জানুয়ারি সৌদি সরকার ও বাংলাদেশ সরকারের মধ্যে দ্বি-পাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তি অনুযায়ী এ বছর হজযাত্রীর কোটা ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন নির্ধারিত হয়েছে। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১৫ হাজার জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১ লাখ ১২ হাজার ১৯৮ জন পবিত্র হজ পালন করতে পারবেন।
এ বছর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে সৌদি আরবে গমনকারী শতভাগ হজযাত্রীর প্রি-অ্যারাইভাল ইমিগ্রেশন ‹মক্কা রোড চুক্তি› অনুযায়ী বিমানবন্দরেই সম্পন্ন হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ