Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ০৬ যিলহজ ১৪৪৫ হিজরী

অপরিকল্পিত হেফযখানা নিয়ে প্রয়োজন ভাবনা-চিন্তা

জাতীয় শিক্ষাব্যবস্থা : আমাদের ভাবনা ১১

ড. মুহাম্মদ ঈসা শাহেদী | প্রকাশের সময় : ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১২:০০ এএম

আল্লাহর কুরআনের প্রতি মুমিন মুসলমানের স্বভাবজাত আকর্ষণে সারা দেশে কুরআনের হাফেয বানানোর একটি প্রবণতা শহর-গ্রামে সর্বত্র ছড়িয়ে পড়েছে। একজন ছাত্র হাফেয হতে হলে কমপক্ষে ৩/৪টি বছর নিরবচ্ছিন্নভাবে উৎসর্গ করতে হয় এবং কুরআন মুখস্থকরণ রপ্ত করতে হয় শৈশব ও কৈশোরে। হাফেয হওয়ার পর তাদের প্রধান ও একমাত্র কর্মক্ষেত্র রমজানে মসজিদে তারাবীহতে ইমামতি ও নামাযে এক খতম কুরআন তেলাওয়াত করা। বাস্তবতা হচ্ছে হাফেযের সংখ্যা এত বেশি হয়েছে যে, রমজানে খতম পড়ানোর সুযোগ অনেকেই পাচ্ছেন না।

আরেকটি বাস্তবতা হচ্ছে, কোনো হাফেয যদি পরপর তিন বা চার বছর রমজানে তারাবীহতে খতমে কুরআন পড়ানোর সুযোগ না পায় তাহলে তিনি হৃদয়ের স্মৃতিপটে কুরআন মুখস্থ রাখতে পারে না। তখন তিনি এক ধরনের মর্মবেদনা অনুভব করেন কুরআন মুখস্থ করে ভুলে যাওয়ার কারণে। তখন একথা ভাবা স্বাভাবিক যে, জীবনের দু‘তিনটি বছর যে কুরআন মুখস্থ করার পেছনে ব্যয় করলাম, তার ফলাফল কী। তার চেয়ে এটাই উত্তম ছিল যে, মুসলমান হিসেবে জীবন যাপনের জন্য বিশুদ্ধ কুরআন তেলায়াত, প্রয়োজনীয় সূরাসমূহ মুখস্থ করা ও মাসআলা মাসায়েল শেখানোর যে সহজ উন্নত ও বৈজ্ঞানিক নূরানী পদ্ধতি কারী বেলায়েত সাহেব উদ্ভাবন করেছেন (আল্লাহ তাকে জান্নাতবাসী করুন) সেখানে প্রাথমিক শিক্ষা হাসিল করবে। এরপর স্কুলে বা মাদরাসায় চতুর্থ শ্রেণিতে কিংবা হেফযখানায় ভর্তি হবে। এটিই তো যুক্তির দাবি ছিল। বিষয়টি নিয়ে আবেগতাড়িত না হয়ে চিন্তা করার জন্য দ্বীনদার জনগণ ও আলেম সমাজের প্রতি আহŸান জানাচ্ছি। হাফেয হওয়ার জন্য কণ্ঠস্বর ও স্মরণশক্তির দিকটি অবশ্যই বিবেচ্য। নূরানী মাদরাসাতেই নির্ণয় করা যাবে কণ্ঠস্বর ও স্মরণশক্তির দিক দিয়ে হেফয করার প্রতিভাধারী শিশু কারা, যাদেরকে হেফযখানায় ভর্তি করালে ভবিষ্যতে ভালো করতে পারবে। এসব চিন্তা না করে গড্ডালিকা প্রবাহে কঠিন কঠোর নিয়ম ও শাসনের নিগড়ে বন্দি করে অবোধ শিশুদের দিয়ে কুরআন হিফয করানোর পরিণতি দয়া করে ভেবে দেখুন।



 

Show all comments
  • mahfuz rahman ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৯:০৮ এএম says : 0
    আফসুস, ড.ঈসা শাহেদীর মত ব্যক্তিত্বের কাছে, কুরআনে হাফেজ সম্পর্কে , এরকম অজ্ঞানতা সুলভ লেখা আশা করিনি।
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ শাহীনুর আলম ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৬:৫০ এএম says : 0
    কুরআন মুখস্থ কি সুধুই তারাবী পরানোর জন্য????? মানুষকে কুরআন পরতে আল্লাহ তালার নির্দেশ, এটা মুখস্থ করলেই তারাবী পরাতে হবে?? মানুষকে কুরআন বিমুখ করবেন না এধরণের লিখা না লিখাই ভালো
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ