Inqilab Logo

শনিবার , ০১ এপ্রিল ২০২৩, ১৮ চৈত্র ১৪২৯, ০৯ রমজান ১৪৪৪ হিজরী

চার দিনব্যাপি মিরপুর মুক্তির উৎসব শুরু হচ্ছে কাল

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ জানুয়ারি, ২০২৩, ১০:৫৪ পিএম

৩১ জানুয়ারি মিরপুর মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে বিজয় অর্জন করার ৪৬ দিন পর ১৯৭২ সালের ৩১ জানুয়ারি মিরপুর পাকহানাদার মুক্ত হয়। দিবসটি যথাযথ মর্যাদায় উদযাপনের লক্ষ্যে প্রতি বছরের মত এবারও ‘মিরপুর সাংস্কৃতিক ঐক্য ফোরাম’ আয়োজন করছে ‘মিরপুর মুক্তির উৎসব ২০২৩’।
চার দিনব্যাপী এ আয়োজনের বিশেষত্ব হলো, মিরপুরের বিভিন্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা। উৎসবের প্রথম দিন ২৮ জানুয়ারি শনিবার বিকেল ৩টায় মিরপুর-২ নম্বর সেকশনের ন্যাশনাল বাংলা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে আয়োজন করা হয়েছে উদ্বোধনী পর্ব। এদিন “এসো আঁকি আমার ইতিহাস” শীর্ষক শিশু-কিশোরদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। মিরপুরের বিভিন্ন প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে। এদিন অনুষ্ঠান উদ্বোধন করবেন ঢাকা-১৪ আসনের এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা আগা খান মিন্টু। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত থাকবেন ৭ নম্বর ওয়ার্ড ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর তফাজ্জল হোসেন টেনু, ৬,৭,৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শিখা চক্রবর্তী এবং বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদের সভাপতি মিজানুর রহমান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন মিরপুর সাংস্কৃতিক ঐক্য ফোরামের সভাপতি আবুল খায়ের।
উৎসবের দ্বিতীয় দিন ২৯ জানুয়ারি, রোববার সকাল ১০টায় মিরপুরের রূপনগরে কামাল মজুমদার স্কুল এ্যান্ড কলেজ মিলনায়তনে আয়োজন করা হয়েছে “মিরপুর মুক্তির পঞ্চাশ বছর ও আমাদের ভাবনা” শীর্ষক এক সেমিনার। সেমিনারে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করবেন মিরপুর সাংস্কৃতিক ঐক্য ফোরামের সহ সাধারণ সম্পাদক শহীদুল হক খান শ্যানন। এদিন সন্ধ্যা ৬ টায় মিরপুর-৬ নম্বর সেকশনের মুকুল ফৌজ মাঠে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চলচ্চিত্র সগীর মোস্তফা নির্মিত ‘বধ্যভূমির বাংলা’ ও “মিরপুর দ্যা লাস্ট ফ্রন্টিয়ার” শীর্ষক চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে। এ প্রদর্শনী সবার জন্য উন্মুক্ত।
চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার ফলাফল ঘোষণা, সনদপত্র বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছে ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ সোমবার বিকেল ৪টায়। বিকেল ৫টায় মিরপুর ১০ নম্বর সেকশনের জল্লাদখানা বধ্যভূমি স্মৃতিপীঠ সংলগ্ন শিশুবান্ধব গণ পরিসরে আয়োজন করা হয়েছে আলোর মিছিল, প্রদীপ জ্বালিয়ে ও পুস্পার্ঘ্য অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন। এ অনুষ্ঠানে সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সঙ্গীত, দেশাত্মবোধক গান ও গণসংগীত পরিবেশন করা হবে।
এছাড়া রয়েছে মিরপুর মুক্তির প্রথম প্রহর উদযাপন। ৩১ জানুয়ারির প্রথম প্রহরে রাত ১২.০১ মিনিটে পাঠ করা হবে শপথ বাক্য।
মিরপুর মুক্ত দিবস ৩১ জানুয়ারি, মঙ্গলবার উৎসবের শেষ দিন বিকেল ৪টায় মিরপুর-১২ নম্বর সেকশনের পল্লবী সিটি ক্লাব মাঠে আয়োজন করা হয়েছে মিরপুর মুক্ত দিবসের ইতিহাস ও তাৎপর্য তুলে ধরে কথামালা, গুণীজন সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। শিল্প-সংস্কৃতির ক্ষেত্রে অবদানের জন্য বরেণ্য নাট্য নির্দেশক ও অভিনেতা মামনূর রশীদ এবং বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলাম লেখক শহীদ বুদ্ধিজীবী খন্দকার আবু তালেব (মরণোত্তর) কে গুণীজন সম্মাননা প্রদান করা হবে। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে. এম. খালিদ এমপি। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ঢাকা ১৬ আসনের এমপি আলহাজ্ব ইলিয়াস উদ্দীন মোল্লা। অনুষ্ঠানে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করবেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট সভাপতি লেখক-গবেষক গোলাম কুদ্দুছ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ